ঝুলন্ত পার্লামেন্টের পথে ফ্রান্স, প্রধানমন্ত্রী নিয়ে অচলাবস্থা

ফ্রান্সে বিভিন্ন দলের সমর্থকরা সমবত হচ্ছেন

ঝুলন্ত পার্লামেন্টের পথে ফ্রান্স, প্রধানমন্ত্রী নিয়ে অচলাবস্থা

অনলাইন ডেস্ক

কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন ফ্রান্সের নাগরিকরা। দেশটির সরকারি ফলাফলে বলা হয়েছে, নির্বাচনে বামপন্থী জোট নিউ পপুলার ফ্রন্ট (এনএফপি) জয়ী হয়েছে। এদিকে পার্লামেন্ট নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে প্রথম ধাপে এগিয়ে থাকা উগ্র ডানপন্থী দল ন্যাশনাল র‍্যালি (আরএন)। ফলে ঝুলন্ত পার্লামেন্টের পথে এগুচ্ছে ফ্রান্স।

কারণ, বিবিসি তাদের লাইভ প্রতিবেদনে জানাচ্ছে, প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর মধ্যপন্থী জোট এনসেম্বল দ্বিতীয় হয়েছে এবং ন্যাশনাল র্যাযলির (আরএন) অবস্থান তৃতীয়। এককভাবে কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ৫৭৭ আসনের ফরাসি পার্লামেন্টে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে প্রয়োজন ২৮৯টি আসন।  
প্যারিসের এইচইসি বিজনেস স্কুলের বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক আরমিন স্টেইনবাখ বিবিসিকে বলেছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে মাখোঁ থাকবেন দুর্বল অবস্থানে।
আইন প্রণয়নে এলিসি প্রাসাদের কোনো ভূমিকা থাকবে না। প্রেসিডেন্ট নিজেই এ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছেন এবং তিনি বৈধতা হারাচ্ছেন। ফরাসি মিডিয়া একে এলিসি প্রাসাদে প্রেসিডেন্টের ‘রাজত্বের সমাপ্তি’ বলে বর্ণনা করেছে।
ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নিউ পপুলার ফ্রন্ট (এনএফপি) পেয়েছে ১৮২টি আসন, ম্যাক্রোঁর মধ্যপন্থী জোট এনসেম্বল পেয়েছে ১৬৩টি আসন এবং যারা ক্ষমতায় আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল, সেই ন্যাশনাল র্যা্লি (আরএন) ১৪৩টি আসনে জয় পেয়েছে।  
দেশটিতে এখন কে হবেন প্রধানমন্ত্রী, ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে কে নেতৃত্ব দেবেন এ নিয়ে রাজনৈতিক অচলাবস্থা শুরু হয়েছে।  

https://www.bbc.com/news/live/ck7gydwgvy8t

news24bd.tv/ডিডি