প্রশ্নফাঁস নিয়ে মুখ খুললেন পিএসসির চেয়ারম্যান 

সোহরাব হোসাইন

প্রশ্নফাঁস নিয়ে মুখ খুললেন পিএসসির চেয়ারম্যান 

অনলাইন ডেস্ক

বিসিএসসহ বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস নিয়ে মুখ খুলেছেন পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন। সোমবার (৮ জুলাই) সন্ধ্যায় তিনি গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘পিএসসি সাধারণ চাকরিপ্রার্থীদের আস্থার জায়গা। এ প্রতিষ্ঠান যেমন রাষ্ট্রের, তেমনি সাধারণ মানুষেরও। এ প্রতিষ্ঠান বিতর্কিত করার চেষ্টা করা হলে চাকরিপ্রার্থীরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

প্রশ্নফাঁস নিয়ে পিএসসি কী পদক্ষেপ নেবে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যেহেতু একটি অভিযোগ উঠেছে, সেহেতু আমরা বিষয়টি তদন্ত করবো। এ জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। কমিটি যে প্রতিবেদন দেবে, সেটার আলোকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

রোববার (৭ জুলাই) একটি সংবাদ মাধ্যমে পিএসসির প্রশ্নফাঁস নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচারিত হয়।

তাতে বলা হয়, এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বিসিএসের প্রিলিমিনারি, লিখিত পরীক্ষা প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রায় সব সরকারি নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস করেছে একটি চক্র। সেখানে সবাই পিএসসির সাবেক-বর্তমান কর্মকর্তা ও কর্মচারী।

এদিকে, বিসিএস পরীক্ষাসহ ৩০টি নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে পিএসসির চেয়ারম্যানের সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী জীবন, দুই উপ-পরিচালকসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। সোমবার (৮ জুলাই) সিআইডির সদর দপ্তর সূত্র তথ্য জানায়।  

গ্রেপ্তার হওয়া ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন পিএসসির উপ-পরিচালক মো. আবু জাফর ও মো. জাহাঙ্গীর আলম, সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর কবির, অফিস সহায়ক খলিলুর রহমান ও অফিস সহায়ক (ডিসপাস) সাজেদুল ইসলাম।

এছাড়াও গ্রেপ্তার হয়েছে নোমান সিদ্দিকী, ঢাবির সাবেক শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের রাজনীতি করা এবং বর্তমানে মিরপুরের ব্যবসায়ী আবু সোলায়মান মো. সোহেল, অডিটর প্রিয়নাথ রায়, ব্যবসায়ী মো. জাহিদুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসের নিরাপত্তা প্রহরী শাহাদাত হোসেন, ঢাকার ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অফিসে কর্মরত মো. মামুনুর রশীদ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মেডিকেল টেকনিশিয়ান মো. নিয়ামুন হাসান, ব্যবসায়ী সহোদর সাখাওয়াত হোসেন ও সায়েম হোসেন ও বেকার যুবক লিটন সরকার।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রশ্নফাঁসে অভিযুক্ত পিএসসির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হলেন উপপরিচালক মো. আবু জাফর, উপপরিচালক জাহাঙ্গির আলম, সহকারী পরিচালক এস এম আলমগীর কবির, সহকারী পরিচালক নিখিল চন্দ্র রায়, চেয়ারম্যানের সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী জীবন ও অফিস সহায়ক খলিলুর রহমান।

news24bd.tv/আইএএম

সম্পর্কিত খবর

পাঠকপ্রিয়