ভারতে পাচারের নাম করে তিন নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ 

প্রতীকী ছবি

ভারতে পাচারের নাম করে তিন নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার নেপা গ্রাম থেকে তিন নারীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সলেমানপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধ ভাবে পাচারের সময় সংঘবদ্ধ চক্র তাদের নিয়ে আসে এবং ওইটি চক্র তাদেরকে আটক করে রেখে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেছে।  

মহেশপুর থানার ওসি মাহবুবুর রহমান কাজল এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার বিকালে নেপা ইউনিয়ন পরিষদের নিকটস্থ জনৈক লালন মিয়ার বাড়ি থেকে ৩ নারীকে উদ্ধার করে পুলিশ।  

উদ্ধারকৃত নারীরা জানান, তারা গাজীপুরের একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে কর্মরত ছিলেন।

মহেশপুর উপজেলার সলেমানপুর গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে সুজনও একই গার্মেন্টসে কাজ করতেন। সেই সুবাদে সুজন ভারতে তাদের ভালো বেতনের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সলেমানপুর গ্রামে ইব্রাহীম হোসেনের ছেলে কদম আলীর বাড়িতে নিয়ে আসেন।  

এরপর তাদের বাঘাডাঙ্গা গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে হৃদয়, সলেমানপুর গ্রামের নবী নিকেরির ছেলে আব্দুস সোবাহান ও বাঘাডাঙ্গা গ্রামের মফিজের হাতে তুলে দেয়। এই তিনজন তাদের ভারতে পাচারের দায়িত্ব নেয়।

ওই নারীদের অভিযোগ গত ৪ জুলাই থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত তাদের বিভিন্ন বাড়িতে আটকে রেখে পাচারকারী চক্র তাদের ধর্ষণ করে।  

এ বিষয়ে বিজিবির কুমিল্লা পাড়ার ক্যাম্প কমান্ডার গিয়াসউদ্দির বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ওই তিন নারীকে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।  

মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান কাজল জানান, মহেশপুর ৫৮ বিজিবির পক্ষ থেকে সোমবার বিকালে একটি এজাহার দাখিল করা হয়েছে। ওই তিন নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে তারা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার তাদের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।  

তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত সদস্যদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।

news24bd.tv/কেআই

পাঠকপ্রিয়