যে নিয়মে আখরোট খাওয়ার পরামার্শ দেন পুষ্টিবিদরা 

সংগৃহীত ছবি

যে নিয়মে আখরোট খাওয়ার পরামার্শ দেন পুষ্টিবিদরা 

অনলাইন ডেস্ক

বাদামের চেয়ে পুষ্টিগুণে কোনো অংশে নয় আখরোটের। এতে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, প্রোটিন, ম্যাগনেসিয়ামের মতো আরও নানা খনিজ পদার্থ রয়েছে।

অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টও রয়েছে ভরপুর মাত্রায়। অর্থাৎ আখরোট খেলে শরীরে বিভিন্ন ধরনের উপাদান যায়।

আখরোট দিয়ে তৈরি কেক, মাফিন, ব্রাউনি খেতে অনেকেই ভালোবাসেন।

আপনার ডায়েটে কেন আখরোট রাখা জরুরি, সেই খবর রাখেন কী? চিকিৎসকরা বলেন, ক্যানসার থেকে হার্টের অসুখ, সবই নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে আখরোট। মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াতেও জুড়ি মেলা ভার এই বাদামের।  

জেনে নিন কেন পুষ্টিবিদরা নিয়ম করে আখরোট খাওয়ার পরামার্শ দেন।

আখরোটে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড ভরপুর মাত্রায় থাকে। শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এই ফ্যাটি অ্যাসিড দারুণ কাজ করে। কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে থাকলে রক্তচাপও বাগে রাখা সম্ভব, ফলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও কমবে। আখরোটে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড ভরপুর মাত্রায় থাকে, হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে উপকারী।

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকার ফলে আখরোট মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াতেও সাহায্য করে। নিয়ম করে আখরোট খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে, নিউরোলজিক্যাল ডিজঅর্ডারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও কমে।

আখরোটে ফাইবারও থাকে ভালোমাত্রায়। ডায়েটে ফাইবার রাখলে হজম ক্ষমতা বাড়ে। পাকস্থলীতে হজমে সাহায্যকারী ব্যাক্টেরিয়া তৈরি হয়। এই ব্যাক্টেরিয়া পেট ভালো রাখে, পেটের সংক্রমণ দূর করতেও সাহায্য করে।

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, আখরোটে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট ও অন্যান্য কিছু রাসায়নিক থাকে, যা ক্যানসার প্রতিরোধ করতে পারে। বিশেষ কয়েক ধরনের ক্যানসার ঠেকিয়ে রাখতে আখরোট দারুণ উপকারী।

ওমেগা ৩-ফ্যাটি অ্যাসিড ও আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিডে সমৃদ্ধ আখরোট। এছাড়াও আখরোটে উচ্চ মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট ও মাইক্রো নিউট্রিয়েন্টস থাকে। পুরুষদের বন্ধ্যত্বের সমস্যা কমতে এসব উপাদন বেশ উপকারী। বেশ কিছু গবেষণায় বলা হয়েছে, শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়াতেও সাহায্য করে আখরোট।

news24bd.tv/কেআই

পাঠকপ্রিয়