সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০৩ মিনিট আগে

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান লাইফ সাপোর্টে 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান লাইফ সাপোর্টে 

দেশের কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান লাইফ সাপোর্টে। এটিএম শামসুজ্জামানের ছোট ভাই সালেহ জামান সেলিম মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

তিনি জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালের লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে এটিএম ভাইকে।

তিনি আরও বলেন, আমি সারাদিন বসুন্ধরায় ছিলাম। আমার মিটিং চলছিল। বিকেলে আমাকে ফোন করে এ বিষয়টি জানানো হয়।
কিন্তু এটা আমি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না। কারণ আমি একেবারে সুস্থ অবস্থায় ভাইকে রেখে এসেছি। এরমধ্যে কী হয়ে গেলো! এই মুহূর্তে রাস্তায় আছি। হাসপাতালে যাওয়ার পর বিস্তারিত জানাতে পারব।

এরইমধ্যে দেশবাসী ও এটিএম শামসুজ্জামানের ভক্ত অনুরাগীদের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন সেলিম।

গত শুক্রবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এটিএম শামসুজ্জামান। মল-মূত্র বন্ধ হয়ে যায়। শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। ওইদিন রাত এগারোটার দিকে তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে। শনিবার দুপুরে প্রায় তিন ঘন্টার অপারেশন শেষে পর্যবেক্ষণে রাখা হয় এটিএম শামসুজ্জামানকে।

এরপরেই এটিএম শামসুজ্জামানের ছোট ভাই জানান, সবার দোয়ায় এটিএম শামসুজ্জামানের সফল অস্ত্রোপচার হয়েছে। তাকে আরও পাঁচদিন হাসপাতালে রাখতে হবে।

সেলিম আরও বলেছিলেন, ত্রিশ বছর আগে এটিএম শামসুজ্জামানের গলব্লাডারে একটি অপারেশন হয়েছিল। গলব্লাডারে যে নলটি আছে এখানে কোনো কারণে প্রেসার পড়েছিল বিধায় গত কয়েকদিন ধরে তার খাদ্য হজম হচ্ছিল না। যার ফলে খাদ্যগুলো শক্ত পদার্থে রূপ নিয়েছিল। অপারেশন করে এ সমস্যার সমাধান করলেন চিকিৎসকরা। এ নিয়ে আর কোনো ঝুঁকি নেই।

এমন ঝুঁকি মুক্তির খবরের পরও কেন তবে লাইফ সাপোর্টে, এমন প্রশ্ন এখন এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবারের।

ষাটের দশকের শুরুতে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন এটিএম শামসুজ্জামান। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে কাজ করেছেন ‘জলছবি’ ছবিতে। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করলেও খল অভিনেতা হিসেবেই জনপ্রিয়তা পান এটিএম।


(নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল)

মন্তব্য