সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ১১ মিনিট আগে

শিশুদের দিয়ে কর্মসৃজন প্রকল্পে কাজ করানো হচ্ছে

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

শিশুদের দিয়ে কর্মসৃজন প্রকল্পে কাজ করানো হচ্ছে

ফরিদপুরের সালথার আটঘর ইউনিয়নে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান (ইজিপিপি) কর্মসূচির ২য় পর্যায় প্রকল্পের কাজ শিশুদের দিয়ে করানো হচ্ছে। 

এ ছাড়াও খাতা-কলমে শতভাগ শ্রমিক উপস্থিত দেখিয়ে, বাস্তবে কম শ্রমিক দিয়ে কাজ করিয়ে টাকা আত্মসাৎ করার পায়তারা চলছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ইউনিয়নের কাকলাখোলা পুর্বপাড়া মসজিদ হইতে জেলে ভিটা পর্যন্ত রাস্তা নির্মানে ৫০ জন শ্রমিক নিয়োগ থাকলেও সরেজমিনে শ্রমিক পাওয়া যায় ১৭ জন। তার মধ্যে ৬ জন রয়েছে শিশু শ্রমিক। শিশুদের বয়স ১০ থেকে ১৫ বছর। এরা ৪র্থ থেকে নবম শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। 

এ প্রকল্পের সভাপতি ইউপি সদস্য আক্কাস মিয়া বলেন, অল্প টাকা মজুরীর কারণে শ্রমিক রাস্তায় কম আসে। অন্য প্রকল্প গোবিন্দপুর উত্তরপাড়া ব্রীজ হইতে দুর্গাপুর পর্যন্ত রাস্তা মেরামত। 

এ প্রকল্পে তালিকায় মোট শ্রমিক রয়েছে ৫০ জন। কাজে নিয়োজিত রয়েছে ১০ জন। সেখানেও শিশু শ্রমিক পাওয়া রয়েছে ৩ জন। এ প্রকল্পের সভাপতি ইউপি সদস্য আয়নাল মাতুব্বর। সে এলাকায় না থাকায় কাজের দেখাশোনা করেন ঐ ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ নজরুল ইসলাম।

আটঘর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান খান সোহাগ বলেন, বর্তমানে প্রতিদিন দুইশত টাকায় মাটি কাটার কাজে আসতে চায়না। তাই প্রকল্পে শ্রমিক কম উপস্থিত হয়। শিশুদের দিয়ে শ্রমিকের কাজ করানো হচ্ছে এ বিষয়ে চেয়ারম্যান বলেন, ওদের অভিভাবকেরা পাঠালে আমরা ফেরৎ দিবো কেমনে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা লিয়াকত হোসেন বলেন, উপজেলার সকল প্রকল্পের সভাপতিদের এনে মিটিংয়ে সাবধান করা হয়েছে তাতেও কাজ হচ্ছে না। ওনারা আমাদের কোন কথা শুনছেনা। 

আর শিশুদের দিয়ে কোন রকম কাজ করা যাবেনা। কোন প্রকল্পে শিশুদের পাওয়া গেলে ঐ প্রকল্পের সভাপতির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


(নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল)

মন্তব্য