বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০১ ঘন্টা ৫৪ মিনিট আগে

চলন্ত বাসে ধর্ষণ মামলায় চারজনের যাবতজীবন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

চলন্ত বাসে ধর্ষণ মামলায় চারজনের যাবতজীবন

টাঙ্গাইলের বিনিময় পরিবহণের চলন্ত বাসে এক গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণ মামলায় চারজনকে যাবতজীবন কারাদণ্ড ও প্রতিজনকে এক লাখ টাকা করে অর্থ দণ্ড দিয়েছে আদালত। 

আজ বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক বেগম খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন। 

কারাদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন, ওই পরিবহনের চালক হাবিবুর রহমান, হেলপার খালেক ভুট্রু, হেলপার আশরাফুল ও কন্ট্রাকটার
রেজাউল করিম জুয়েল। এরমধ্যে রেজাউল করিম জুয়েল পলাতক আছেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিশেষ পিপি নাসিমুল আক্তার নাসিম। তাকে সহায়তা করেন মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা টাঙ্গাইল জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আতাউর রহমান আজাদ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১ এপ্রিল টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি বাসস্ট্যান্ড থেকে ভোর পাঁচটার দিকে নির্যাতিতা ওই গার্মেন্টস কর্মী কর্মস্থল কালিয়াকৈরে যাওয়ার জন্য ‘বিনিময় পরিবহনের’ একটি বাসে উঠে। এ সময় বাসটিতে আর যাত্রী না থাকার সুযোগে কিছুদূর যাওয়ার পর বাসের জানালা দরজা বন্ধ করে দিয়ে পিঁছনের ছিটে নিয়ে জোর পূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা।

পরে বাসটি ঢাকা না গিয়ে টাঙ্গাইল ময়মনসিংহ রোডের একটি ফাঁকা স্থানে তাকে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিমকে  টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত বাসের চালক ও দুই সহকারীকে আটক করে।

এদিকে ঘটনা ধামাচাপা ও অপরাধীদের সহযোগীতা করার জন্য পাঁচ শ্রমিক নেতা ও জড়িত চারজনসহ মোট নয় জনের নামে ধর্ষিতার স্বামী বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানা মামলা দায়ের করে। 

পুলিশ তদন্ত শেষে চার জনকে আসামি করে চার্জশিস্ট প্রদান করে প্রভাবশালী ওই শ্রমিক নেতাদের অব্যহতি দেয়। এদের মধ্যে গ্রেপ্তারকৃত তিন আসামি আদালতে স্বীকাররোক্তি মূলক জবানবন্দী প্রদান করে।


(নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল)

মন্তব্য