রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৮ ঘন্টা ৩৭ মিনিট আগে

পুলিশের হাতে নির্যাতিতা ছাত্রীর পাশে বিএনপি নেতারা

বেলাল রিজভী, মাদরীপুর প্রতিনিধি

পুলিশের হাতে নির্যাতিতা ছাত্রীর পাশে বিএনপি নেতারা

পুলিশের হাতে যৌন নির্যাতনের শিকার স্কুলছাত্রীকে শনিবার দুপুর দুটার দিকে ঢাকা থেকে সদর হাসপাতালে দেখতে গেলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম সেলিনা রহমান ও মহিলাদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহম্মেদ।

এ সময় নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর হাতে আর্থিক অনুদান তুলে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, মাদারীপুর পুলিশ লাইনের নায়েক মোক্তার হোসেন শহরের টিবি ক্লিনিক সড়কে দীর্ঘ দিন থেকে ভাড়া থাকেন। কয়েক দিন পূর্বে মোক্তারের গর্ভবতী স্ত্রী গ্রামের বাড়ি চলে যায়। এই সুযোগ গত গত ১৯ মে রোববার রাতে শহরের টিভি ক্লিনিক সড়কের প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীকে ঘরে ডেকে নেয় পুলিশ সদস্য। এসময় দরজা বন্ধ করে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেন স্কুলছাত্রীকে পেছনের ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দেয়। এতে করে স্কুল ছাত্রীর গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সংবাদটি বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় বিএনপির নেত্রীরা স্কুলছাত্রীকে হাসপাতালে দেখতে আসে।

আর্থিক অনুদানসহ নির্যাতিত স্কুলছাত্রী ও পরিবারের খোঁজ-খবর নিলেন বিএনপির নেত্রীরা। এসময় নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর নানুর হাতে আর্থিক অনুদান তুলে দেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম সেলিনা রহমান ও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহম্মেদ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মহিলাদলের সহসভাপতি জেবা খান, সাংগঠনিক সসম্পাদক পারভীন আক্তার, সহসম্পাদক সারমিন ইসলাম ডেইজী।

এছাড়াও মাদারীপুর জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাহান্দার আলী জাহান, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম লিটু, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জামিনুর হোসেন মিঠু, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট জাফর আলী মিয়া, পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট শরীফ সাইফুল কবীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/বেলাল/তৌহিদ)

মন্তব্য