বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০ | আপডেট ০৩ ঘণ্টা ৪২ মিনিট আগে

চাঁদার দাবিতে মালবাহী ট্রাকে আগুন

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি প্রতিনিধি

চাঁদার দাবিতে মালবাহী ট্রাকে আগুন

মালবাহী ট্রাকে আগুন

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে চাঁদার দাবিতে একটি মালবাহী ট্রাক আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। সোমবার বেলা ১১টার দিকে বাঘাইছড়ি উপজেলার মারিশ্যা-দীঘীনালা সংযোগ সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ট্রাকের চালকেও মারধর করে ওই সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম থেকে একটি মালবাহী ট্রাক (চট্টমেট্টো-ট-১১-২৩-৩৮) খাগড়াছড়ি দিঘীনালা- ম্যারিশা সড়ক দিয়ে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় আসছিল।

এসময় গাড়িটি রাবার বাগান এলাকায় পৌঁছালে চারজন উপজাতি যুবক অস্ত্র নিয়ে ট্রাকের সড়ক অবরোধ করে চালককে গাড়ি থামাতে বলে। গাড়ি থামাতেই চালককে ট্রাক থেকে টেনে বের করে মারধর করে ওই সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। পরে চাঁদার টাকা না পেয়ে কাঁচামালসহ পুরো গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা।

এব্যাপারে ট্রাক চালক মো. ফরিদ আহমেদ বলেন, শুনেছি স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নামধারী আঞ্চলিক দলগুলো প্রতিমাসে
একটি মোটা অংকের চাঁদার টাকা নেয়। কিন্তু এবার চাঁদা না পেয়ে তারা মালসহ গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে।

রাঙামাটি বাঘাইছড়ি উপজেলার থানার কর্মকর্তা ওসি এম এ মঞ্জুরুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ট্রাক চালক ও তার সহকারীকে উদ্ধার করে যৌথবাহিনী। কিন্তু যৌথবাহিনী আসার আগেই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। পরে খাগড়াছড়ির দিঘীনালা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে ট্রাকের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

অন্যদিকে এ ঘটনার জন্য তীব্র নিন্দা জানিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বাঙালী সংগঠনের নেতারা।

সংগঠনের এক নেতা ও অ্যাডভোকেট মো. আবছার আলী বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে উপজাতি নামধারী আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর কাছে মানুষ জিম্মি হয়ে পরেছে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরাও চাঁদা ছাড়া ব্যবসা করতে পারছে না। চাঁদা না পেলে তারা অগ্নিসংযোগ খুন, গুম, হানাহানি করে চলেছে।

চিহ্নত সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দ্রুত প্রশাসনকে ব্যবস্তা গ্রহণ করতে হবে। তা না হলে তাদের দৌরাত্ম আরও বৃদ্ধি পাবে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/মুমু/তৌহিদ)

মন্তব্য