১৮ জুলাই ,বৃহস্পতিবার, ২০১৯

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> জাতীয়

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

২৪ জুন ,সোমবার, ২০১৯ ২১:৫৪:২১

'দেশের মানুষ কষ্ট পেলে বাবার আত্মা কষ্ট পাবে'


'দেশের মানুষ কষ্ট পেলে বাবার আত্মা কষ্ট পাবে'

ফাইল ছবি


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বারবার আঘাত আসা সত্ত্বেও আওয়ামী লীগ কখনও ভেঙে পড়েনি। আঘাতটা যে শুধু পাকিস্তান আমলে হয়েছে তা নয়, ৭৫’এ জাতির পিতাকে হত্যার পর থেকে এখন পর্যন্ত দলটিকে নিয়ে বারবার ষড়যন্ত্র হয়েছে।

আওয়ামী লীগকে হীরা টুকরার সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, হীরা যত কাটা হয়, তত বেশি উজ্জ্বল হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই আওয়ামী লীগের ওপর অনেক আঘাত এসেছে। 

আওয়ামী লীগের ওপর যত বেশি আঘাত এসেছে, আওয়ামী লীগ তত বেশি শক্তিশালী হয়েছে। আর এর পেছনে রয়েছে আওয়ামী লীগের মানুষের জন্য কর্তব্যবোধ, দায়িত্ববোধ, ভালোবাসা, ত্যাগ-তিতিক্ষা। এসব আছে বলেই আওয়ামী লীগ ৭০ বছর ধরে টিকে আছে।

সোমবার বিকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভা যৌথভাবে পরিচালনা করেন দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন।

সভামঞ্চে উঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে জড়িয়ে ধরেন এবং সাজেদা চৌধুরীও আওয়ামী লীগ সভাপতির কপালে বাৎসল্যের চুমু দেন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তার বক্তৃতায় ঐতিহাসিক আওয়ামী লীগের অর্জনকে বাংলাদেশের অর্জন উল্লেখ করেন। দেশের মানুষ যাতে উন্নত জীবন পায় সেজন্য কাজ করে যাচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

বিভিন্ন সময়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর নেমে আসা নির্মম অত্যাচারের বর্ণনা তুলে ধরে আবেগাপ্লুত বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে দেশের ও দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে উদাত্ত আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ১৯৭৫ সালে জাতির পিতাকে যখন হত্যা করা হলো তারপর যারা এ দলটিকে ধরে রেখেছিল, তাদের ওপর যে অত্যাচার নির্যাতন হলো সেটা ভাষায় বর্ণনা করা যায় না। আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করাই ছিল ষড়যন্ত্রকারীদের প্রধান লক্ষ্য। কিন্তু যতই এ দলটাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করা হয়েছে আওয়ামী লীগ তত বেশি শক্তিশালী হয়েছে।

স্বাধীনতার পরও বারবার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পরীক্ষা দিয়ে যেতে হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগের সব থেকে বড় গুণ হলো দেশের মানুষের প্রতি দলটির কর্তব্যবোধ-দায়িত্ববোধ এবং ভালোবাসা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এত ত্যাগ-তিতিক্ষা করেছে বলেই এ দলটি ৭০ বছর টিকে আছে।

৭৫ পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের আবারও সেই পাকিস্তানি হানাদারদের অত্যাচার সইতে হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, একাত্তরে যেমন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর লক্ষ্য ছিল গ্রামগঞ্জে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী বাড়িঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া।

 প্রত্যেকের ওপর আঘাত এসেছে। দেশ যখন স্বাধীন হলো পঁচাত্তরের পর আবারও সেই একই আঘাত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের জীবনে নেমে আসল। শুধু তাই নয়, স্বাধীনতার পরপরই আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যসহ ৭ জন নেতাকর্মীকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়লে জানা যায়, আমাদের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক, তিনি অত্যাচার-নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছিলেন।

আওয়ামী লীগের আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের ইতিহাস যদি দেখেন দেখবেন কত আত্মত্যাগ। আমার মনে হয় না কোনো রাজনৈতিক দল কোনো দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য এত আত্মত্যাগ করেছে কিনা?

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এনামুল হক শামীম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত ও উত্তরের সভাপতি এ কে এম রহমত উল্লাহ এবং অধ্যাপক মুনতাসির মামুন প্রমুখ।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল)


ইরানের সঙ্গে আলোচনা চান পম্পেও
রাষ্ট্রদূতদের সম্মেলনে যোগ দিতে লন্ডনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
ফিলিস্তিনে হামলায় বাংলাদেশের নিন্দা
বিচারকের প্রশ্নে মিন্নি নিরব
নওগাঁয় কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের রাজসভা
পাকিস্তানে জঙ্গি নেতা হাফিজ সাঈদ গ্রেপ্তার
সৌদি বিমানবন্দরে ইয়েমেনি ড্রোনের হামলা
রাজধানীতে ভবন ধসে নিখোঁজ ২
আদালতকে ওসি মোয়াজ্জেম বললেন আমি নির্দোষ
রিফাত হত্যা: পাঁচ দিনের রিমান্ডে মিন্নি
এ বছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল সন্তোষজনক: প্রধানমন্ত্রী
মাদ্রাসায় গরুর গোস্ত আছে সন্দেহে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ
মিন্নি কেন আসামি?
ডুবল কাপ্তাই হ্রদের ঝুলন্ত সেতু
এরশাদের কুলখানি আজ
বেড়েছে পাসের হার ও জিপিএ-৫
৪১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সবাই ফেল
শাহরুখ কন্যার উদ্দাম নাচ ভাইরাল
এইচএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষণ যেভাবে
এইচএসসিতে পাসের হার ৭৩.৯৩
ইরানের সঙ্গে আলোচনা চান পম্পেও
রাষ্ট্রদূতদের সম্মেলনে যোগ দিতে লন্ডনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
ঢাকা-চাঁপাইনবাবগঞ্জ পর্যন্ত বনলতা এক্সপ্রেস উদ্বোধন
ফিলিস্তিনে হামলায় বাংলাদেশের নিন্দা
দিনাজপুরে ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে
বিচারকের প্রশ্নে মিন্নি নিরব
' সোনার বাংলার ক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু অর্জিত হয়েছে'
নারীসহ ৯ জেএমবি সদস্য পুনরায় কারাগারে
যশোর শিক্ষাবোর্ডে পাশের হার বেড়েছে
নওগাঁয় কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের রাজসভা
পাকিস্তানে জঙ্গি নেতা হাফিজ সাঈদ গ্রেপ্তার
সৌদি বিমানবন্দরে ইয়েমেনি ড্রোনের হামলা
জনগণের সমর্থন ছাড়া ক্ষমতায় থাকতে চাই না: তথ্যমন্ত্রী
রাজধানীতে ভবন ধসে নিখোঁজ ২
আদালতকে ওসি মোয়াজ্জেম বললেন আমি নির্দোষ
রিফাত হত্যা: পাঁচ দিনের রিমান্ডে মিন্নি
মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় মিয়ানমারের শীর্ষ চার সেনা কর্মকর্তা
পাসের হারে কুমিল্লা, জিপিএ ৫ ঢাকা এগিয়ে
রাঙামাটিতে পানির চাপ কমাতে খোলা হয়েছে ১৬টি গেট
এরশাদের কবর জিয়ারত করলেন তার ছেলে সাদ এরশাদ
৮০ বছরের বৃদ্ধাকে ধর্ষণ করল ১৫ বছরের কিশোর
‘ওসির মারপিটে’ হোটেল মালিকের চোখ জখম
এরশাদের জন্য দোয়া চাইলেন এরিক
আমার শ্বশুর অসুস্থ: মিন্নি
৪১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সবাই ফেল
‘নয়ন জোর করে কাগজে সই করায়’
স্বামী ও দেবরকে কাজে পাঠিয়ে পুত্রবধূকে ধর্ষণ!
মুস্তাফিজের জাঁকজমকপূর্ণ বৌভাত
কোচবিহার থেকে যেভাবে বাংলাদেশে এরশাদ
মুখ ঝলসানো ছাত্রীর বিবস্ত্র মরদেহ পুকুরে
গভীর রাতে আটক শিক্ষক-ছাত্রী!
চকলেটের লোভ দেখিয়ে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ
জিজ্ঞাসাবাদের পর মিন্নি গ্রেপ্তার
এরশাদের কবর জিয়ারত করলেন তার ছেলে সাদ এরশাদ
বরগুনা পুলিশ লাইনে জিজ্ঞাসাবাদ মিন্নিকে
শাহরুখ কন্যার উদ্দাম নাচ ভাইরাল
এরশাদের প্রথম জানাজা সম্পন্ন
‘রিফাত হত্যায় মিন্নি জড়িত’
এটিএম শামসুজ্জামানকে দেখতে হাসপাতালে কবরী
পারস্য উপসাগরে ব্রিটেনের যুদ্ধজাহাজ, চরম উত্তেজনা

সব খবর