মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৯ মিনিট আগে

রাঙামাটিতে ঘণ্টাব্যাপী ‌‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

রাঙামাটি প্রতিনিধি

রাঙামাটিতে ঘণ্টাব্যাপী ‌‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

রাঙামাটির শুভলংয়ে এমএন লারমা পক্ষ সংস্কারপন্থী ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে কোকো চাকমা (২৬) নামে একজন নিহত হয়েছেন। তিনি এমএন লারমা গ্রুপের স্পীড বোর্ড চালক বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে রাঙামাটির বরকল উপজেলার শুভলং ইউনিয়নের নতুন পাড়া মুখ নারিকেল বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি থেকে ছেড়ে আসা একটি বালু ও ইট বোঝায় ট্রলার লংগদুর উদ্দেশ্য যাচ্ছিল। এসময়  ট্রলারটি শুভলং বাজার এলাকায় পৌঁছালে চাঁদার জন্য দূর থেকে ইসারা করে ট্রলার থামাতে বলে এমএন লারমা পক্ষের সদস্যরা। কিন্তু মাল বোঝায় ট্রলারটি না থামিয়ে চলে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্পীট বোট দিয়ে ট্রলারটি ধাওয়া করে
সংস্কারপন্থী সদস্যরা। ট্রলার ধরতে না পেরে দূর থেকে গুলি ছুড়তে থাকে তারা। এসময় ট্রলারটি রাঙামাটির বরকল উপজেলার শুভলং ইউনিয়নের নতুন পাড়া মুখ নারিকেল বাগান এলাকায় পৌঁছালে পাল্টা গুলি ছোড়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সদস্যরা। এক পর্যায়ে দুই সশস্ত্র গ্রুপের মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী চলে বন্দুকযুদ্ধ। এঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে পানিতে পড়ে যায় এমএন লারমা গ্রুপের স্পীড বোর্ড চালক কোকো চাকমা। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে যৌথবাহিনীর বিশেষ দল। কিন্তু এ আগেই ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা।

রাঙামাটির শুভলং ইউনিয়নের পুলিশ ফাঁড়ির কর্মকর্তা এসআই মো. আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। পুরো এলাকায় যৌথবাহিনীর দল নিরাপত্তা জোরদার করেছে। গুলিবিদ্ধ কোকোর মরদেহ কাপ্তাই হ্রদ থেকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/মুমু/তৌহিদ)

মন্তব্য