শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ০১ ঘন্টা ০২ মিনিট আগে

‘রিফাতের মতো গণতন্ত্রকেও হত্যা করা হয়েছে’

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর প্রতিনিধি

‘রিফাতের মতো গণতন্ত্রকেও হত্যা করা হয়েছে’

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাটোর জেলা সভাপতি অ্যডভোকেট এম. রুহুল কুদ্দুস কালুকদার দুলু বলেছেন, সরকার বাধা না হলে দ্রুতই কারাবন্দী খালেদা জিয়া বাকি দুই মামলায় (জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল মামলা) জামিন পাবেন। দলের কাউন্সিলের চাইতেও আমরা নেত্রীর মুক্তির বিষয়টিকে প্রাধান্য দিচ্ছি। চেয়ারপার্সনের উপস্থিতিতেই আমরা দলের কাউন্সিল করতে চাই। তাই বিএনপির সপ্তম জাতীয় কাউন্সিলের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই।

শনিবার বিকেলে নাটোর জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে দলেন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হকের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী তাঁতি দলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক অধ্যক্ষ বাহাউদ্দীন বাহার, সহসভাপতি শহিদুল ইসলাম বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী শাহ আলম, সদর থানা বিএনপির সভাপতি রহিম নেওয়াজ, শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র শেখ এমদাদুল হক আল মামুন, প্রচার সম্পাদক ফরহাদ আলী দেওয়ান শাহীন, জেলা যুবদল সভাপতি এ হাই তালুকদার ডালিম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সোহাগ, জেলা জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহম্মেদ রনি।

দুলু আরোও বলেন, বিশ্বজিৎ, রিফাত, সানাউল্লাহ নূর বাবুকে যেভাবে প্রকাশ্যে হত্যা করা হয়েছে। ঠিক একইভাবে বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারকে এই বাকশালী হত্যা করেছে। সুশাসন ও ন্যায় বিচার না থাকায় দেশে প্রকাশ্যে হত্যার
ঘটনা ঘটছে। যে কারণে বাড়ছে অন্যায়। বরগুনায় যেভাবে দিনদুপুরে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। সরকার একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। এজন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ক্রমেই বেপরোয়া হয়ে
উঠছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/নাসিম/তৌহিদ)

মন্তব্য