শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১১ ঘন্টা ৩৫ মিনিট আগে

ফরিদপুরে ১৪০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত

সোহাগ জামান, ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে ১৪০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত

ফরিদপুরের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ১৪০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৩৪ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

এদের অধিকাংশ রোগী রাজধানী ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে স্থানীয়ভাবে ১৭জন ডেঙ্গু রোগে আক্রন্ত হয়েছেন।

এদিকে ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসায় সাধারণত স্যালাইন আর প্যারাসিটামল দেওয়া হলেও সংকটের কারণে রোগীদের প্রয়োজনীয় স্যালাইন দিতে পারছে না ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (ফমেক) কর্তৃপক্ষ।

শনিবার ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, স্যালাইন সংকটের কারণে হাসপাতাল থেকে বেশিরভাগ রোগীকে স্যালাইন দেওয়া হচ্ছে না। এদের অধিকাংশ রোগীর স্বজনরা বাইরে থেকে স্যালাইন কিনে আনছেন।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক কামদা প্রসাদ সাহা বলেন, প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। বর্তমানে ১০৮ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

স্যালাইন সংকটের কথা স্বীকার করে তিনি আরও বলেন, হঠাৎ করে একসঙ্গে এতো ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নেওয়ায় এই সংকট দেখা দিয়েছে। ডেঙ্গুসহ নানা রোগীর জন্য ৫০০ বেডের এ হাসপাতালে বর্তমান সংকট মোকাবিলায় জরুরিভাবে ১০ হাজার ব্যাগ স্যালাইন দরকার।

ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০৮ জন, ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতাল ও প্রাইভেট হাসপাতালে ৩২ জন রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩৪ জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

স্যালাইন সংকটের বিষয়ে সিভিল সার্জন বলেন, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালেই স্যালাইন সংকট রয়েছে।

এক্ষেত্রে বাইরে থেকে স্যালাইন কিনে নিয়ে অনেকে রোগী সামাল দিচ্ছেন।

তবে মুখে খাবার স্যালাইন দিয়ে অনেকটা প্রয়োজন মেটানো যায় বলে তিনি জানান।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/সোহাগ/তৌহিদ)

মন্তব্য