সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০২ মিনিট আগে

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় শহর হচ্ছে সৌদিতে

মোহাম্মদ আল-আমীন, সৌদি আরব প্রতিনিধি

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় শহর হচ্ছে সৌদিতে

লোহিত সাগরের তীর ঘেষে মরুভূমিতে সৌদি আরব বিশাল এক শহর গড়ে তুলছে। ১০০ বিলিয়ন ডলার বা সাত লাখ ৭৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হবে এ শহর। যা হবে পৃথিবীর অন্যতম বড় শহর। এর আয়তন নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪৯বর্গ কিলোমিটার যা ওয়াশিংটন ডিসির চেয়েও বড়।

ইতোমধ্যে শহরটির নির্মাণ কাজ সিংহ ভাগ শেষ হয়েছে। শহরটিতে থাকছে পৃথিবীর অন্যতম বড় একটি সমুদ্র বন্দর, অত্যাধুনিক রেলস্টেশন, বিশাল শিল্প এলাকা, সুসজ্জিত আবাসিক এলাকা, সৈকত।

এছাড়া স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল, বিশ্ববিদ্যালয়, বিশালাকায় শপিং কমপ্লেক্স, সুরম্য মসজিদ, বিনোদন কেন্দ্র, খেলার মাঠ, পার্কসহ ধনিক শ্রেণির আধুনিক বিলাসী জীবন-যাপনের জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছুর সমাহার। বিশালাকায় রেলস্টেশনের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ থাকবে মক্কা এবং মদিনার।

স্থানটি দেখতে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের হাজারো দর্শনার্থী প্রতিদিন ভীর করছেন এখানে। প্রবেশের জন্য কোনো ধরনের ফি নেওয়া না হলেও আসার আগে বিনামূল্যে গাড়ি রেজিস্ট্রেশনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। পর্যাপ্ত নিরাপত্তারক্ষী ছাড়াও এখানে রয়েছে বেশকিছু হোটেল-মোটেল। শিশুদের জন্য রয়েছে বিশেষায়িত পার্ক। ভোজন বিলাসীদের জন্য সুস্বাদু খাবারের রেস্টুরেন্টতো আছেই।

হাজীসহ ভ্রমনপিপাসুদের জন্য এটা হবে অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র। ২০ লাখ মানুষ বাস করতে পারবে এ শহরে। আবাসিক এলাকায় বসবাসের জন্য নির্মাণাধীন রয়েছে অসংখ্য সুরুম্য ডুপ্লেক্স বাড়ি। লোহিত সাগরের তীর ঘেষে যে স্থানে শহরটি নির্মিত হচ্ছে সেটা দেখার মতো একটি এলাকা বটে। সাগর তীর ঘেষে বিশালাকায় আকাবাকা একটি লেক রয়েছে এখানে। লেকের তিন দিক ভূমি বেষ্টিত আর একদিকে সাগরের সঙ্গে সংযোগ। বিশাল এ লেকের মধ্যে থাকবে ছোট ছোট কয়েকটি দ্বীপ।

সবচেয়ে বড় দ্বীপটিকে রূপান্তর করা হবে অর্থনৈতিক দ্বীপে। খ্যাতিমান ব্রিটিশ স্থপতি নরম্যান ফস্টার এর নকশা প্রণয়ন করেছেন। সৌদি আরবে বর্তমানে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা বেশি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রাজুয়েট ডিগ্রি অর্জন করছে। তাছাড়া বর্তমানে সৌদি আরবের ২ লাখ ছাত্র-ছাত্রী বিদেশে পড়াশুনা করছে। এরা যখন দেশে আসবে তখন পরিস্থিতির অনেক পরিবর্তন হবে। সবকিছু বিবেচনায় রেখে এ মহানগর নির্মাণ করা হচ্ছে। সম্প্রতি মারা যাওয়া কিং আব্দুল্লাহ এ নগরের পত্তন করেন। ২০০৫ সালে এ নগর পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করে সৌদি সরকার। তাই তার নামানুসারে শহরটির নাম রাখা হয়েছে কিং আব্দুল্লাহ ইকোনমিক সিটি। এই শহর নির্মাণের কাজ শেষ হতে আরো কয়েক বছর লেগে যাবে। এ শহর নির্মিত হলে সৌদি আরব নববৈচিত্র পাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/আল-আমিন/তৌহিদ)

মন্তব্য