শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ৩৮ মিনিট আগে

গৃহ শিক্ষকের ভাইয়ের হাতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট প্রতিনিধি

গৃহ শিক্ষকের ভাইয়ের হাতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত

বাগেরহাট সদরে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও মোরেলগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে ওই দুইজনকে আদালতে পাঠালে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠান।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন জানান, রোববার বিকেলে নোনাডাঙ্গা গ্রামের এক মেয়ে গৃহ শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে যায় ওই ছাত্রী। এসময়ে ওই গৃহ শিক্ষক বাড়িতে না থাকায় তার ভাই অনিক শেখ (২২) পঞ্চম শ্রেণির ওই শিশুকে ধর্ষণ করে। শিশুটি বাড়ি ফিরে এ ঘটনা তার মাকে জানায়।

পরে শিশুটি মা জেসমিন বেগম অনিক শেখকে আসামি করে বাগেরহাট মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে। গ্রেপ্তার এড়াতে নোনাডাঙ্গা গ্রামে মকসুদ শেখের ছেলে ধর্ষক অনিক শেখ রোববার রাতে রাজধানী ঢাকাগামী একটি পরিবহনে পালাতে থাকে। পুলিশ ঢাকাগামী পরিবহনের নাম ও আসন নম্বর জানতে পেরে ধর্ষককে গ্রেপ্তারে মাদারীপুর জেলার চরজানাজাত নৌ পুলিশ ফাঁড়ির সহযোগিতা চায়। ঢাকাগামী ওই পরিবহনটি চরজানাজাত ফেরিঘাটে পৌঁছালে নৌ পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা অনিক শেখকে গ্রেপ্তার করে। ধর্ষক অনিক শেখকে রাতেই মাদারীপুর থেকে বাগেরহাটে নিয়ে আসা হয়। সোমবার সকালে তাকে আদালতে পাঠালে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এদিকে মেয়েটির ডাক্তারি পরিক্ষা বাগেরহাট হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে।

অপর দিকে মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম জানান, একই দিন বিকেলে মোরেলগঞ্জ উপজেলার মধ্য-বরিশাল গ্রামের মাঠে গরু আনতে গেলে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় মজিবুল হক বয়াতী (৪৫) নামে এক ব্যক্তি।

‘গৃহবধূর স্বামী মোরেলগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করলে রোববার রাতে উপজেলার সন্ন্যাসী লঞ্চঘাট বাজার থেকে মজিবুল হক বয়াতীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সকালে তাকে আদালতে পাঠালে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।’

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য