রবিবার, ১২ জুলাই, ২০২০ | আপডেট ০৮ ঘণ্টা ১৬ মিনিট আগে

আয়নায় ‌‌‘দেখা যায় না’ ইমরানের বউকে!

অনলাইন ডেস্ক

আয়নায় ‌‌‘দেখা যায় না’ ইমরানের বউকে!

ইমরান খান ও বুশরা

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তৃতীয় স্ত্রী বুশরা মানেকার প্রতিচ্ছবি নাকি আয়নায় দেখা যায় না। সবসময়ই এই নারী পা থেকে মাথা পর্যন্ত বোরকায় ঢেকে রাখেন। তাকে নিয়ে বিস্তর সমালোচনাও হয়েছে। তবে এবার যে তথ্য সামনে এসেছে, সেটা একেবারেই চাঞ্চল্যকর।

বুশরা মানেকার ছবি আয়নায় দেখা না যাওয়ার মতো চাঞ্চল্যকর দাবি করা হয়েছে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে। আর ইমরান খানের কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত লোকজনই সে কথা জানিয়েছেন।

এর আগে কিছু প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বুশরা মানেকার কাছে দুটি ‘জিন’ রয়েছে। ওই জিনদের রান্না করা মাংস খাওয়ান বুশরা মানেকা। সে কারণে নাকি সব অসম্ভব সম্ভব হয়ে যায়।

ওই রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, একজনের আওয়াজ শুনতে পান বুশরা। আর সেই আওয়াজ নাকি বুশরাকে সঠিক পথ বাতলে দেয়। বুশরার পরিবারের এক সদস্যের দাবি, বুশরাকে সেই অশরীরী আওয়াজ জানিয়েছিল, যদি ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হতে চান, তাহলে তাকে সঠিক নারীকে বিয়ে করতে হবে।  গত বছর গুগলে পাকিস্তান থেকে সবচেয়ে বেশি সার্চ করা হয়েছে বুশরাকে। এ বছরও সেই ধারা অব্যাহত আছে।

বুশরা নাকি প্রথমে ইমরান খানকে বলেছিলেন, বুশরার বোনকে বিয়ে করতে। পরে নাকি নিজের মেয়ের সঙ্গে ইমরানকে বিয়ে দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। এর পর তিনি স্বপ্ন দেখেন। ওই অশরীরীর আওয়াজ বুশরাকে জানায়, পাঁচ সন্তানের মা বুশরাকেই বিয়ে করতে হবে ইমরান খানকে। বুশরার তখনকার স্বামীও এ কথা জেনে তাকে তালাক দিতে রাজি হয়ে যান।

অনেকেই বলছেন,  পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী নাকি অতিভৌতিক ক্ষমতার অধিকারী। ঘটনা ঘিরে বহু ধরনের তত্ত্ব উঠে আসছে। শোনা গেছে, ইমরানের বাসভবনের কর্মচারীরা এমন ঘটনার কথা পাকিস্তানের মিডিয়ার সামনে তুলে ধরেছে। 

বুশরাকে ঘিরে এ ধরনের কথায় ইমরানের বাসভবনে রীতিমতো তোলপাড় পড়ে গেছে বলেও দাবি পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যম ক্যাপিটাল টিভির। বুশরা বহুবার বিভিন্ন বিতর্কে থেকেছেন।

বুশরার সৌন্দর্যের প্রশংসা যেমন হয়েছে, তেমনই তার জীবনের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন ঘটনার প্রসঙ্গও বারবার উঠে এসেছে। ইমরানের সঙ্গে ছয় মাসের সম্পর্কের পর বুশরার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই অস্বাভাবিক ঘটনা চোখে পড়তে থাকে ইমরানের বাসভবনের কর্মচারীদের। এমন তথ্য ইসলামবাদে কান পাতলেই শোনা যায়, বলে পাকিস্তানি সংবাদমাধমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

সূত্র- জিওটিভি

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য