শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ১৩ মিনিট আগে

পদ্মা-মহানন্দার পানি স্থিতিশীল, নদী ভাঙ্গন শুরু

মো. রফিকুল আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

পদ্মা-মহানন্দার পানি স্থিতিশীল, নদী ভাঙ্গন শুরু

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পদ্মা ও মহানন্দা নদীর পানি আজ বৃহস্পতিবার স্থিতিশীল রয়েছে। তবে মহানন্দা নদীর তীব্র স্রোত থাকায় গোমস্তাপুর উপজেলার কাশিয়াবাড়ি ও নয়াদিয়াড়ী এলাকায় নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, গতকাল বুধবার নতুনভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার চরমোহনপুর ও নামোশংকরবাটি বড়িপাড়া ও জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পানিবন্দী হয়ে পড়েছে প্রায় ৪শ' পরিবার।

এনিয়ে সদর উপজেলা, গোমস্তাপুর ও শিবগঞ্জে প্রায় ৬০হাজার মানুষ পানিবন্দী রয়েছেন।

জেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. হাসানুজ্জামান ফৌজদার জানান, সদর উপজেলায় ৫হাজার ৫৬২টি পরিবারের ২৪হাজার ৬২৩জন, শিবগঞ্জ উপজেলায় ৮ হাজার পরিবারের ৩২হাজার ৪০০জন এবং গোমস্তাপুর উপজেলার ২৩৮টি পরিবারের ৯৮০জন মানুষ পানিবন্দী রয়েছেন।

এদিকে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আতিকুর রহমান জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর পানি ৩ সে.মি বৃদ্ধি পেয়ে ২৭ সে.মি নিচ দিয়ে এবং মহানন্দা নদীর পানি ৬ সে.মি বৃদ্ধি পেয়ে ১৮ সেমি. নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে আশার কথা হচ্ছে গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত পানি স্থিতিশীল রয়েছে। 

এদিকে বন্যা মোকাবিলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে বন্যা নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।

অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম জানান, নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে নতুন করে পৌর এলাকার চরমোহনপুর ও নামোশংকরবাটি বড়িপাড়ার প্রায় ৪০০ পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

শিবগঞ্জ আসনের এমপি ডা. সামিল উদ্দীন আহমেদ শিমুল জানান, শিবগঞ্জ উপজেলার চারটি ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকার মানুষ পানিবন্দী রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারিভাবে যে তালিকা করে ত্রাণ দেওয়া হয়েছে তা অপ্রতুল।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য