শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ১১ মিনিট আগে

বিএনপিকে কি আমরা মেলে ফেলব?

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপিকে কি আমরা মেলে ফেলব?

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, ভিন্নমতের জন্য একজন মানুষকে মেরে ফেলার অধিকার কারো নেই।

সোমবার সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, একটু আগেও পুলিশের আইজির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, তিনি আমাকে জিজ্ঞাস করেছেন, আমি তাকে বলেছি আপনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও বিষয়টা নিয়ে আলাপ করতে পারেন।

ভিন্নমতের জন্য একজন মানুষকে মেরে ফেলার অধিকার কারো নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। তদন্ত চলছে, তদন্তে যারাই অপরাধী বলে সাব্যস্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পার্সোনালি আমি বলেছি।

তিনি বলেন, ‘আমি ভিন্ন মত পোষণ করি বলে… ভারত সফরে দেশ বিক্রিও তো বলে ফেলছে বিএনপি। তাই বলে কি বিএনপিকে আমরা মেলে ফেলব? যারা বলছে তাদের কী আমরা মেরে ফেলব?’

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার রাত তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা যায়, গতকাল দিবাগত রাতে বুয়েটের শের-ই বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা। পরে রাত তিনটার দিকে হল থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। মারা যাওয়া আবরার বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে।

হলের যে কক্ষে আবরারকে পেটানো হয়, সেই কক্ষে চার শিক্ষার্থী থাকেন। তাঁদের মধ্যে যে তিনজন পলাতক। তাঁরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক উপসম্পাদক ও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র অমিত সাহা, উপদপ্তর সম্পাদক ও কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র মুজতাবা রাফিদ, সমাজসেবাবিষয়ক উপসম্পাদক ও বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র ইফতি মোশারফ।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য