শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৬ ঘণ্টা ০২ মিনিট আগে

ফায়ার সার্ভিসের ভবন আছে, কার্যক্রম নেই

অনলাইন ডেস্ক

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস ভবন থাকলেও নেই কার্যক্রম। তাই ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কয়েক বছর পেরিয়ে গেলেও ভবনটি পড়ে আছে অযত্নে। জেলার সবকটি উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন চালু থাকলেও এই উপজেলায় তা চালু না থাকায় যেকোনো দুর্ঘটনায় সাহায্য নিতে হয় অন্য স্টেশন থেকে।

তবে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ বলছে, জনবলের অভাবে এত দিন বন্ধ থাকা স্টেশনটি শিগগিরিই চালু করা হবে।

নিউজ টোয়েন্টিফোরের দিনাজপুর প্রতিনিধি ফখরুল হাসান পলাশ জানাচ্ছেন, দিনাজপুরের সব কয়টি উপজেলার মধ্যে শুধু নবাবগঞ্জে এখন পর্যন্ত চালু করা হয়নি ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশন। ২০১৫ সালে স্টেশনটির ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন এবং দেড় বছর আগে আনুষ্ঠানিকভাবে ভিডিও কন্ফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি উদ্বোধন করলেও এখনও শুরু হয়নি কোনো কার্যক্রম।

ফলে, যেকোনো দুর্ঘটনায় অন্য ফায়ার সার্ভিস থেকে সাহায্য নিতে হয়। এতে ঝুঁকির পাশাপাশি বেড়ে যায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও। 

দীর্ঘদিন অব্যবহৃত থাকায় ভবনটির পলেস্তারা খসে পড়া ছাড়াও নষ্ট হচ্ছে বিভিন্ন অবকাঠামো। দ্রুত ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনটি চালুর দাবি উপজেলাবাসীর। 

এলাকাবাসী জানায়, এটা অযন্তে অবহেলায় ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। পলেস্তারা খসে পড়ছে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, জেলা সমন্বয় বৈঠকে এটি চালুর ব্যাপারে একাধিকবার বলার পরও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

জনবলের অভাবে স্টেশনটি বন্ধ ছিল বলছে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ। দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক আজিজুল ইসলাম জানান, আশা করা হচ্ছে এক মাসের মধ্যে এ স্টেশনের কার্যক্রম চালু করা যাবে। এ ব্যাপারে গণপূর্ত বিভাগের কাছে পত্র পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
 
জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে ছয়টিতে তিন তলা বিশিষ্ঠ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স ভবন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৩কোটি টাকা।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য