বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ |

নিজের ফাঁসি চাইলেন ভিসি

অনলাইন ডেস্ক

নিজের ফাঁসি চাইলেন ভিসি

আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়ে ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম বলেছেন, ‘আমাকে ফাঁসি দিয়ে দাও।’ আরও বলেন, ‘আমি অসুস্থ। সরকারপ্রধান জানেন, আমি কী করেছি।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টায় নিজ কার্যালয়ে হল প্রভোস্টদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক শেষে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে পদত্যাগ দাবি করলে তিনি এ কথা বলেন।

উপাচার্য কার্যালয় থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে শিক্ষার্থীরা তাকে ঘিরে ধরেন। এ সময় আবরার হত্যার বিচার দাবিতে আট দফা দাবির ঘোষণা চান শিক্ষার্থীরা।

রোববার রাতে আবরার ফাহাদ রাব্বীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় কথার শুরুতেই তিনি বলেন, ‘আবরারের মৃত্যু হয়েছে।’ তখন শিক্ষার্থীরা ‘মৃত্যু নয় খুন হয়েছে’ বলে চিৎকার করতে থাকে। একপর্যায়ে তিনি বলেন, ‘ঠিক আছে, খুনই হয়েছে।’

ভিসি বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে আমি অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নিয়েছি। প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। পাঁচ-ছয়জনকে নিয়ে বসেছি। সব তো আমার হাতে নেই। যেগুলো আমার হাতে আছে, সেগুলো আমি করছি। নীতিগতভাবে তোমাদের পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছি। সারা দিন মন্ত্রী মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। তোমরা অধৈর্য হবে না।’

এ সময় শিক্ষার্থীরা তাদের দাবির বিষয়ে সিন্ধান্ত না দিয়ে উপাচার্যকে ক্যাম্পাস না ছাড়ার দাবি জানান। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমি তো কোনো অন্যায় করিনি।’

তখন শিক্ষার্থীরা উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলামকে উদ্দেশ করে ‘ভুয়া, ভুয়া’ বলে স্লোগান দেয়।

উপাচার্য সাইফুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের বারবার বলতে থাকেন, ‘এখানে কথা বলার জায়গা না। কথা বলতে দশজন প্রতিনিধি আমার সঙ্গে বসো।’

এ সময় শিক্ষার্থীরা ‘ভুয়া, ভুয়া’ বলে চিৎকার করে ওঠেন।

পরে আবারো উপাচার্য বলেন, ‘আমি অসুস্থ। সরকারপ্রধান জানেন, আমি কী করেছি। আমি চেষ্টা করছি এর সুষ্ঠু সমাধান করার।’

উপাচার্য বলেন, আমি তোমাদের সাত দফার সঙ্গে একমত পোষণ করছি। তোমরা প্রতিনিধি দাও। প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলব। আমি এক কথায় বললাম, তোমাদের দাবির সঙ্গে একমত।’

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য