শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০২ মিনিট আগে

একজন আফসানা আসিফ সোমার গল্প (ভিডিও)

ষ্টাফ রিপোর্টার

আফসানা আসিফ সোমা, একটি অনুপ্রেরণার নাম, একজন সফল উদ্যোক্তার প্রতিচ্ছবি। এক আকাশ স্বপ্ন আর এক সমুদ্র পরিশ্রম, তাকে নিয়ে এসেছে আজকের অবস্থানে। কর্মজীবনের শুরুতে শিক্ষকতা করলেও আরো কিছু করার আগ্রহ থেকে উদ্যোক্তা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন আফসানা আসিফ।২০১৪ সালে মাত্র ১০ লাখ টাকা পুঁজি আর ৬-৭ জন কর্মী দিয়ে শুরু করেন এসিক্স নামের প্রতিষ্ঠান। এখন ৫ কোটি টাকার ব্যবসা আর কর্মী ৬০ জন। প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলার পেছনে কাজ করেছে দেশ ও পরিবেশের প্রতি ভালোবাসা, বলছিলেন তিনি।

শাড়ি থেকে শুরু করে জুতা, ব্যাগ, ঘরের নিত্য প্রয়োজনীয় নানা সামগ্রী- সবই তৈরী করা যায় পাট থেকে। পরিবেশবান্ধব বলে পাট পণ্যের কদরও বিশ্বজোড়া। তাই দেশিয় অনেক উদ্যোক্তা নিজেদের মেধা, শ্রম আর উদ্ভাবন শক্তি কাজে লাগিয়ে তৈরী করছেন বিভিন্ন ধরণের পাটপণ্য। তেমনি একজন সফল উদ্যোক্তা আফসানা আসিফ সোমা। দেশ ও পরিবেশের প্রতি ভালোবাসা থেকেই শুরু পাট নিয়ে কাজ করা। বিশ্লেষকরা বলছেন, আন্তর্জাতিক বাজার ধরে রাখতে এ খাতের উদ্যোক্তাদের প্রয়োজন সরকারের সহায়তায়। 

মূলত পাট পণ্য নিয়েই কাজ করেন আফসানা আসিফ। নতুন নতুন ডিজাইনের পাটের তৈরী পণ্যের উদ্ভাবক তিনি নিজেই। হোম অ্যাপ্লায়েন্স, পেট একসেসোরিজ, ব্যাগ, জুতাসহ ৯ থেকে ১০ ধরণের পাটের পণ্য তৈরী করেন তিনি। এসব পণ্য এখন দেশের গন্ডি পেরিয়ে জাপান, কানাডা এবং ইউরোপের দেশগুলোতেও রপ্তানি হয়। এখনো প্রতিমূহুর্তেই নিজেকে নতুন করে প্রমাণ করতে চান সোমা। জানান, সম্ভাপনাময় এ শিল্পের নানা চ্যালেঞ্জের কথা।

 

বিশ্লেষকরা বলছেন, বিশ্ব বাজারে পরিবেশবান্ধব এসব পণ্যের চাহিদা দিন দিনই বাড়ছে, নীতিগত সহায়তা পেলে এ খাতের উদ্যোক্তারাও রপ্তানিতে বড় ভূমিকা রাখবে। দক্ষতা, উদ্ভাবনী শক্তি আর আগ্রহ নিয়েই উদ্যোক্তাদের পাট পণ্য শিল্পে কাজ করার আহ্বান তাদের।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে...

মন্তব্য