রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০১ মিনিট আগে

আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে শিশু নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাম্প্রতিক সময়ে আবারো বেড়েছে শিশু নির‌্যাতন। যার সবশেষ উদাহরনসুনামগজ্ঞেবছরের শিশুকে গলা, কানযৌনাঙ্গ কেটে নৃশংসভাবে হত্যা। অপরাধ বিশ্লেষকদের মতে- অন্যায় করে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পার পেয়ে যাওয়ার উদাহরন আছে বলেই-নতুন নতুন বিভৎস মৃত্যু দেখছে বাংলাদেশ। অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনায় এসব থেকে মুক্তির একমাত্র পথ। শিশু নির্যাতন আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ জানান নাগরিক সমাজের প্রতিনিধীরা। 

পাঁচ বছরের শিশু তুহিন। হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে গাছে। শুধু মেরে ফেলেই ক্ষান্ত হয়নি নরপিশাচরা। কেটে নিয়েছে তুহিনের কান, যৌনাঙ্গও। গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তার পেটে ঢোকানো ছিল দুটি বড় ছুরি। সোমবার সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় এমন সৃশংসভাবে হত্যা করা হয় শিশু তুহিনকে।

এভাবেও মানুষ মেরে ফেলা যায় ? এত বিভৎসভাবে শিশু হত্যা হয়তো মনে করতে পারবে না দেশের মানুষ। কেন এত নৃশংসতা-শিশুর প্রতি নির্যাতন ?

গেল রোববার ধামরাইয়ে চার শিশু ধর্ষনের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার রেশ কাটতে না কাটতেই মঙ্গলবার ধামরাইতে ফের পাঁচ বছরের এক শিশু ধর্ষনের অভিযোগ পেয়েছে পুলিশ। আটক করা হয়েছে অভিযুক্তকে।

বিশ্লেষকরা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছেন-আইন প্রয়োগের ফলেই এসিড সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে। এজন্য নারীশিশু নির্যাতন দমনেও কঠোরভাবে বিদ্যমান আইন প্রয়োগের তাগিদ তাদের।

যেকোন অপরাধের দ্রুত বিচারে বিচারবিভাগেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ জরুরী ভিত্তিতে নেয়ার পরামর্শ এই দুই অপরাধ বিশ্লেষকের।

মন্তব্য