বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১৫ মিনিট আগে

পূর্বাচলে খালেরঅধিগ্রহণকৃত জমির ক্ষতিপূরণ পাননি অনেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুড়িল-পূর্বাচল লিংক রোডের দুই পাশে ১০০ ফুট চওড়া খাল নির্মাণের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা ক্ষতিগ্রস্ত অনেক পরিবার এখনো ক্ষতিপূরণ পায়নি। তবে ক্ষতিগ্রস্তরা আবেদন করলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন গৃহায়নগণপূর্তমন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, পূর্বাচল প্রকল্পে কর্মকর্তাদের দায়িত্বহীনতাঠিকাদারদের লোভের কারণে বসবাসের উপযোগী হয়নি। বলেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে পূর্বাচলের অনেক জায়গা বসবাসের উপযোগি হয়ে যাবে।

কুড়িল ফ্লাইওভার থেকে কাঞ্চন ব্রিজ পর্যন্ত প্রায় ১৩ কিলোমিটার সড়ক। এর মধ্যে কুড়িল থেকে বালু নদ পর্যন্ত প্রায় ছয় কিলোমিটার ৩০০ ফুট প্রশস্ত সড়কের দুই পাশে ১০০ ফুট চওড়া খাল খনন করা হচ্ছে। খাল খনন প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে ৩০০ ফুট রাস্তাকে কেন্দ্র করে ভবিষ্যতে গড়ে উঠা আবাসিকবাণিজ্যিক এলাকার বাসিন্দারা পানি নিষ্কাশনের সুবিধা পাবে।

তবে খাল খননের প্রকল্পের কাজ শেষ না হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন আশেপাশের বাসিন্দারা। অনেকে এখনো পাননি ক্ষতিপূরণ।

পূর্বাচল নতুন শহর উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছিল আওয়ামী লীগের প্রথম আমলে ১৯৯৫ সালে। গত ২৫ বছরেও এই প্রকল্পে উল্লেখযোগ্যভাবে দৃশ্যমান হয়নি উন্নয়ন। 

এবছরের মধ্যে পূর্বাচলের অনেক জায়গায়ই বসবাস উপযোগি অবস্থা হবে বলে আশা করছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম।

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-রাজউকের এই প্রকল্পে আবাসিক প্লট আছে ২৫ হাজারের বেশি।

হাসান পারভেজ, নিউজ টোয়েন্টিফোর, ঢাকা

মন্তব্য