রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১০ মিনিট আগে

সিল্ক রোডে সুকৌশলে এগাতে পারলে লাভবান হবে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ, সংক্ষেপে বিআরআই। যোগাযোগ, অবকাঠামো উন্নয়নের চীনা এ প্রকল্পে আছে বাংলাদেশ। বিনিয়োগ ক্ষুধার্থ বাংলাদেশের সামনেপ্রকল্প সম্ভাবনার নতুন দ্বার উন্মোচন করতে পারে। কিছু ঝুঁকি থাকলেও সরকার সুকৌশলে এগাতে পারলেপ্রকল্প থেকে লাভবান হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি দেখছেন অর্থনীতি বিশ্লেষকরা।

দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার পর নতুন করে চালু হচ্ছে সিল্ক রোড। এর নতুন নাম বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ, সংক্ষেপে বিআরআই। চীনের এই প্রকল্পের উদ্দেশ্যমহাদেশব্যাপী যোগাযোগ অবকাঠামো নির্মাণআন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক অঞ্চলকরিডোর প্রতিষ্ঠা। বলা হচ্ছে, এই বিআরআই-ই নির্ধারণ করবে একবিংশ শতাব্দী কার নিয়ন্ত্রণে?

আধুনিক ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক, কূটনৈতিকভূরাজনৈতিক এই প্রকল্পে আছে ৭২টি দেশ, ৬০ শতাংশ বিশ্ব জনসংখ্যা এবং ৪০ শতাংশ উৎপাদন। বাংলাদেশও অন্তর্ভূক্ত এই প্রকল্পে। জ্বালানিঅবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ আগ্রহী বাংলাদেশের জন্য বিআরআই হতে পারে বড় নতুন সম্ভাবনা। তবে এক্ষেত্রে চীনা ঋণের ফাঁদ থেকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন অর্থনীতি বিশ্লেষকরা।

বিআরআই প্রকল্পে নেই বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র ভারত। সেক্ষেত্রে এই প্রকল্প বাংলাদেশের জন্য ভূরাজনৈতিক জটিলতাও সৃষ্টি করতে পারে। এজন্য বাংলাদেশকে সব সমীকরণ হিসেব করেই আগানোর পরামর্শ দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা।

এই প্রকল্প জলবায়ুর উপরও কিছু নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে, এমন আশঙ্কাও করা হচ্ছে। সবমিলিয়ে উদীয়মান অর্থনীতির বাংলাদেশপ্রকল্প থেকে অর্থনৈতিক সুবিধা আদায়ের পাশাপাশি ভূরাজনৈতিক জটিলতাসহ সব বিষয়কে বিবেচনায় নিয়েও সুকৌশলে আগানোর পরামর্শ বিশ্লেষকদের।

 

মন্তব্য