মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ৩২ মিনিট আগে

মামলা করে বিপাকে পরিবার

ঝিনাইদহে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ!

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ!

ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় কালীচরণপুর ইউনিয়নের মগরখালী গ্রামে নবম শ্রেনিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে গণ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ওই ছাত্রীর ভগ্নিপতি জাহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় সাতজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেছে। 

পুলিশ এরই মধ্যে নুর হুসাইন নামে ১ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। ধর্ষণের সাথে জড়িতরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে পারছে না বলে ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ।

এমনকি মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাড়িতে এসে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে ধর্ষকের পরিবারের লোকজন। তাদের ভয়ে বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না পরিবারটি। তারা জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রশাসনের উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। 

তবে পুলিশের ভাষ্য-ইতিমধ্যে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বাকিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে। 

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাতে মগরখালী গ্রামের নবম শ্রেনিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রী  ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। এ সময় এলাকায় লম্পট ও বখাটে আলমঙ্গীর, নাহিদ, আশিক,মজিদ,ইমরান,নুর হোসাইনসহ ৭/৮জন সংঘবন্ধ হয়ে ওই ছাত্রীকে পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে।

লোকলজ্জায় ভয়ে বিষয়টি ভিকটিমের পরিবার কাউকে না জানালেও ধর্ষকের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারের কাছে ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। পরে উপায়ন্তর না পেলে ওই ছাত্রীর দুলভাই বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা দায়ের করে। 

সদর থানার ওসি মঈন উদ্দিন জানান, হুমকি দেওয়ার বিষয়টি ঠিক না। ধর্ষকের পরিবার হুমকি দিয়েছে কি-না আমরা খোঁজখবর নিয়ে দেখব। এদিকে আসামিরা পলাতক রয়েছে। আমরা তাদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল 

মন্তব্য