বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০১ ঘণ্টা ২২ মিনিট আগে

মোবাইলে প্রেম, ধর্ষণের শিকার হয়ে মামলা করল ছাত্রী

অনলাইন ডেস্ক

মোবাইলে প্রেম, ধর্ষণের শিকার হয়ে মামলা করল ছাত্রী

মোবাইলে মিসকলের সূত্র ধরে পরিচয়, এরপর প্রেম। চলে বিয়ের পরিচয় গোপন করে দিনের পর দিন দৈহিক সম্পর্ক। 

এ অভিযোগে দিনাজপুরের বিরামপুরে শৈলান গ্রামের বিবাহিত যুবক আতাউর রহমান ওরফে সাদ্দামকে (২৫) গ্রেপ্তার করতে না পারলেও মাসুম রানা নামের অপর এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত রোববার বিয়ের দাবিতে ওই কলেজছাত্রী তার বাড়িতে গেলে পরিবারের লোকজন নির্যাতন করে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রী আজ সোমবার আতাউর রহমান ও তার স্ত্রীসহ পাঁচজনের নামে থানায় মামলা করেন।

বিরামপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মতিয়ার রহমান জানান, ছয় মাস আগে শৈলান গ্রামের আবু বক্করের ছেলে আতাউর রহমানের সাথে ওই ছাত্রীর মুঠোফোনে পরিচয় হয়। আতাউর নিজের বিয়ের ঘটনা গোপন করে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই ছাত্রী বিয়ের দাবি করলে আতাউর সটকে পড়ে। গতকাল রোববার ওই ছাত্রী বিয়ের দাবিতে আতাউরের বাড়িতে যায়। এ সময় আতাউরের বাবা-মা ও স্ত্রী ওই ছাত্রীকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রী সোমবার সকালে বিরামপুর থানায় এসে মামলা করে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে আদর্শপাড়া থেকে  এজাহার নামীয় আসামি মাসুম রানাকে গ্রেপ্তার করে।

ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান 
বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য