বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১২ মিনিট আগে

নবজাতককে নিয়ে থানায় ধর্ষিতা কিশোরী!

অনলাইন ডেস্ক

নবজাতককে নিয়ে থানায় ধর্ষিতা কিশোরী!

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ধর্ষণের শিকার হয়ে মেয়ে সন্তানের জন্ম দিয়েছে ১৩ বছরের এক কিশোরী।

গতকাল রোববার রাতে ঠাকুরগাঁও জেলা শহরের একটি সরকারি হাসপাতালে সন্তানের জন্ম দেয় সে। এর আগে ওই কিশোরীর মা এ ব্যাপারে মামলা করলে অভিযুক্ত পালিয়ে যান। ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীর এ ঘটনায় জেলাজুড়ে তোলপাড় চলছে।

ওই কিশোরীর পরিবার জানায়, মোহিন চন্দ্র সিংহ (২৩) নামের এক যুবক তাদের বাড়িতে যাতায়াত করতেন। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে মোহিন ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন। এরপরও কয়েকবার এমনটা করেন তিনি। এ কথা কাউকে বললে গলা কেটে হত্যার হুমকি দেন। ভয়ে কিশোরী বাড়িতে কাউকে কিছু জানায়নি।

শারীরিক পরিবর্তন দেখে মায়ের সন্দেহ হলে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানতে পারেন, কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা।

মেয়েটির মা বলেন, মেয়ের কাছে বিষয়টি জানতে পেরে তাঁরা মোহিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাস দেন। কিন্তু পরে বিষয়টি নানা অজুহাতে এড়িয়ে যান।

কিশোরীর গর্ভপাত করানোর জন্য চিকিৎসকের কাছে গেলে চিকিৎসক জানান, এ অবস্থায় গর্ভপাত ঘটালে কিশোরীর মৃত্যুর আশঙ্কা দেখা দিতে পারে। পরে কিশোরীর বাবা ৫ আগস্ট বালিয়াডাঙ্গী থানায় মামলা করেন। মামলার পর মোহিন পালিয়ে যান।

কিশোরীর বাবা অভিযোগ করেন, মামলা তুলে নিতে তাদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে দুপুরে নবজাতককে নিয়ে কিশোরী মা নিজের বাবা-মাসহ বালিয়াডাঙ্গী থানায় হাজির হন। 

সে সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক আমজাদ হোসেন তাদের বলেন, ‘তোমরা বাচ্চাটিকে নিয়ে ভালো করে রাখো। আমি এর মধ্যে অভিযোগপত্র দিয়ে দেব।’

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য