দ্বিতীয় ম্যাচের আগে রোহিত শর্মার হুংকার!

অনলাইন ডেস্ক

দ্বিতীয় ম্যাচের আগে রোহিত শর্মার হুংকার!

ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

সাকিব-তামিমহীন টাইগারদের কাছে প্রথম ম্যাচে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচের আগে হুংকার ছাড়লেন ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা। বলেছেন, রাজকোটে নতুন ভারতকে দেখবে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ভারত। এটি তাদের জন্য ডু অর ডাই ম্যাচ। এ মুহূর্তে দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে তাদের। তবে এ ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়াতে চায় টিম ইন্ডিয়া। সর্বোপরি জিততে মরিয়া তারা। আর হারলেই হাতছাড়া হয়ে যাবে সিরিজ।

রোহিত বললেন, দিল্লির ভুল রাজকোটে করতে চান না তারা। রীতিমতো রানের ফোয়ারা ছোটাতে চান মেন ইন ব্লুরা।

দিল্লির উইকেট ছিল স্পিন সহায়ক। পেসাররাও ভালো সুবিধা পেয়েছে। তবে রাজকোটের পিচ হবে ব্যাটিং সহায়ক। এটিই সাহস জোগাচ্ছে রোহিতকে। এ জন্য রীতিমতো ‘লোলুপ দৃষ্টিতে’ চেয়ে আছেন তারা। সুযোগটা দু'হাতে লুফে নিতে চান স্বাগতিকরা।

ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ব্যাটিংবান্ধব উইকেট পেলে দ্বিতীয় ম্যাচে বদলে যাবে টিম ইন্ডিয়া!

হিটম্যান বলেন, প্রাথমিকভাবে পিচ দেখে ভালোই মনে হচ্ছে। ব্যাটিংয়ের জন্য রাজকোট সবসময়ই ভালো মাঠ। বোলারদেরও কিছু সুবিধা দেয়। আশা করছি, দিল্লির চেয়ে এখানে ভালো করব আমরা। আমাদের ব্যাটসম্যানরা শট খেলতে পছন্দ করে। দিল্লির পিচ এ ফরম্যাটের জন্য আদর্শ ছিল না। সেখানে বড় শট খেলা কঠিন ছিল। পিচ ব্যাটিংস্বর্গ হলে ভিন্ন এক ভারতকেই দেখবে বাংলাদেশ।

এ জন্য চোখ রাখতে হবে বৃহস্পতিবার সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সেখানে বাংলাদেশের বিপক্ষে নামবে ভারত। তারা কামব্যাক করে না বাংলাদেশ সিরিজ জিতে ইতিহাস গড়ে তাই দেখার।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে পাক-ভারত!

অনলাইন ডেস্ক

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে পাক-ভারত!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আবারো মুখোমুখি অবস্থানে ভারত ও পাকিস্তান। চলতি বছর ভারতে বসতে চলেছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার আগে প্রশ্ন, পাকিস্তান কি টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবে? রাজনৈতিক কারণে দীর্ঘদিন পাকিস্তানের খেলোয়াড়রা ভারতে প্রবেশ করতে পারেন না। তাই আইসিসি ও ভারতের কাছে লিখিত নিশ্চয়তা চায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

তবে পাকিস্তানের দাবি, আয়োজক হিসেবে ভারত এখনো নিশ্চিত নয়। আর সে কারণেই বিশ্বকাপের ৭ মাস আগে এসেও ভারতের বিশ্বকাপ নিয়ে অনিশ্চয়তা ও শঙ্কার কথা জানাল পাকিস্তান।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান এহসান মানি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারত থেকে অন্য কোথাও স্থানান্তর করতে আমরা আইসিসির কাছে অনুরোধ করেছি। যদি মেগা ইভেন্ট নিয়ে আমাদের উদ্বেগের সমাধান না হয় তাহলে আইসিসিকে এ আসর চলাকালীন ভারতে পাকিস্তানি প্রতিনিধিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বলেছি।’


ঋণ থেকে মুক্তির দু’টি দোয়া

মেসি ম্যাজিকে সহজেই জিতল বার্সা

দোয়া কবুলের উত্তম সময়

প্রবাসী স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন!


মানি আরও জানান, বিশ্বকাপের জন্য পাকিস্তানের যারা ভারতে যাবেন তাদের ভিসার লিখিত নিশ্চয়তা দাবি করেছে পাকিস্তান তিনি বলেন, ‘যদি এটি সম্ভব না হয় তবে টুর্নামেন্টটি অন্য কোথাও পরিচালনা করা দরকার। আমাদের ক্রিকেটার, কর্মকর্তা এবং সাংবাদিকদের জন্য আমাদের ভিসা প্রয়োজন। আমরা এই বিষয়ে ভারতের কাছ থেকে লিখিত নিশ্চয়তা চেয়েছি। এই উদ্বেগগুলো পূরণ না করা হলে সংযুক্ত আরব আমিরাতেও ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হতে পারে। আমরা এখন আইসিসির প্রতিক্রিয়ার জন্য অপেক্ষা করছি।’

ভারতের মাটিতে খেলা হলে নিরাপত্তা নিয়ে চাপে থাকবেন পাকিস্তানি খেলোয়াড়, কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও সমর্থকরা। তাই তাদের নিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আলাদা করে ভাবতেই হচ্ছে পিসিবিকে। এছাড়া ভিসা ইস্যুতো রয়েছেই।

ভারত ও পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক লড়াই বন্ধ অনেক দিন ধরে। এশিয়া কাপ বা বিশ্বকাপের মত আসর হলে দুই দলকে পরস্পরের মুখোমুখি হতে দেখা যায়। তবে বড় আসরগুলো যখন এই দুই দেশেই আয়োজনের কথা ওঠে, তখন বেঁকে বসে অপর পক্ষ।

অক্টোবরে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্ব ক্রিকেটের এই আসর বসার কথা রয়েছে। এবার অংশ নিচ্ছে ১৬টি দেশ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসর শেষ হবে ১৪ নভেম্বর।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনা জেলে আছি : মিরাজ

অনলাইন ডেস্ক

নিউজিল্যান্ড গিয়ে টাইগাররা ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে। কোথাও বের হওয়ার সুযোগ নেই। খোলা আকাশের নিচে বের হওয়া দূরে, মূলত হোটেল রুমেই আটকা তামিম, রিয়াদ, মুশফিক, লিটন, মিরাজ, মোস্তাফিজরা। এভাবেই  নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন দেশটির কঠোর করোনাবিধি মেনে চলছে। চতুর্থ দিন থেকে অবশ্য প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে হাঁটাচলার সুযোগ পাচ্ছেন।

করোনাকালে এটিই বাংলাদেশের প্রথম বিদেশ সফর। ক্রিকেটারদের জন্য তাই অচেনা পরিবেশে আবদ্ধ থাকার এমন অভিজ্ঞতাও এই প্রথম। মেহেদী হাসান মিরাজ জানালেন, কেমন ছিল এই তিন দিনের অভিজ্ঞতা।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘বুঝতেই পারছেন কেমন লাগছে। এই প্রথম এরকম হোটেলের ভেতর পাঁচ দিন কাটিয়েছি। প্রথম দিকে সময় কাটছিল না, বিরক্ত লাগছিল। প্রথম তিন দিন তো কারও সাথে দেখা সাক্ষাতই হয়নি। ফোনে ফোনে, ভিডিও কলে কথা হয়েছে, রুম টু রুম। যেহেতু পাঁচ দিন কেটে গেছে, সামনের তিন দিনও আশা করি এভাবেই কেটে যাবে।’ 


ঋণ থেকে মুক্তির দু’টি দোয়া

মেসি ম্যাজিকে সহজেই জিতল বার্সা

দোয়া কবুলের উত্তম সময়

প্রবাসী স্বামীকে তালাক দিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন!


 

৭২ ঘণ্টা পর মুক্ত বাতাসে যেতে পেরে যেন ঘোরের মধ্যে ছিলেন ক্রিকেটাররা। তার আগে মিরাজের মনে হয়েছে, জেলখানায় আছেন তিনি!

মিরাজের ভাষায়, ‘তিন দিন পর আধা ঘণ্টা করে বের হওয়ার সুযোগ পেয়েছি। প্রথম দিন বের হয়ে মাথা একটু ঘুরছিল। ১০-১৫ মিনিট পর ঠিক হয়ে গেছে। তিন দিন বন্দী ছিলাম, মনে হচ্ছিল জেলখানায় আছি। সারাদিন রুমে থাকতে তো ভালো লাগে না। তিনটা দিন একই রুমে কাটানো- এটা আমাদের জন্য অস্বস্তিকর। বাইরের আবহাওয়া মানিয়ে নেওয়ার পর ভালো লেগেছে। রুমে গিয়ে ফ্রেশ মনে হয়েছে।’ 

‘মাঠে যেতে পারলে ভালো লাগবে। কিছু জিম বা ওয়ার্কআউট করতে পারলে ভালো হত। সময়ও কেটে যেত, ফিটনেসও ভালো থাকত।’– বলেন মিরাজ।

দলের সঙ্গে থাকা বিসিবি মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম তিনদিন আগেই জানিয়েছেন, নিউজিল্যান্ড পৌঁছে ক্রাইস্টচার্চে হোটেলে চেক-ইনের পর থেকে শুরু হয়েছে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন।

এই ১৪ দিনে একটি-দুুটি নয়, চারটি কোভিড-১৯ টেস্ট দিতে হবে পুরো বাংলাদেশ বহরকে। সবগুলো টেস্টে নেগেটিভ হলেই কেবল ১৪ দিন পর খোলা আকাশের নিচে বের হওয়া তথা অনুশীলনের সুযোগ মিলবে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

নেগেটিভ হওয়ায় টাইগারদের কোয়ারেন্টিন নীতিমালা শিথিল

অনলাইন ডেস্ক

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগের তিনটি ওয়ানডে এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে এখন নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশ জাতীয় দল। 

ক্রাইস্টচার্চ হোটেলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে তারা। দ্বিতীয় দফার করোনা টেস্টে বাংলাদেশের ক্রিকেটার ও স্টাফদের সবাই নেগেটিভ হওয়ায় শিথিল করা হচ্ছে কোয়ারেন্টিন নীতিমালা। হোটেলের লবি ও বাগানে হাটাচলায় মিলছে অনুমতি।  


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী


news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দ্বিতীয় করোনা টেস্টেও নেগেটিভ তামিমরা

অনলাইন ডেস্ক

দ্বিতীয় করোনা টেস্টেও নেগেটিভ তামিমরা

নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে হোটেলে বন্দি অবস্থায় দিন কাটছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। মানতে হচ্ছে কঠোর কোয়ারেন্টিন নিয়ম। মূল সিরিজ শুরু হওয়ার আগে চারটি কোভিড-১৯ টেস্ট হবে টাইগারদের। এর মধ্যে দ্বিতীয় দফায় করোনা টেস্টেও বাংলাদেশের ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফ সবাই নেগেটিভ এসেছে। 

করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভের ফলে ক্রিকেটার ও স্টাফদের কোয়ারেন্টিন কঠোরতায় কিছুটা শিথিল হচ্ছে। এর ফলে হোটেলের লবি ও বাগানে ঘোরাঘুরি করতে পারবে ক্রিকেটাররা। ১ তারিখ পর্যন্ত রুম কোয়ারেন্টিন। তবে আরও দুবার কোভিড-১৯ টেস্ট দিতে হবে পুরো বাংলাদেশ দলকে। সব টেস্টে নেগেটিভ হলেই কেবল ১৪ দিন পর খোলা আকাশের নিচে বের হওয়ার সুযোগ মিলবে।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

শিক্ষা জাতির উন্নয়নের মূল চাবিকাঠি: প্রধানমন্ত্রী

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!


২ থেকে ৯ মার্চ পর্যন্ত ছোট ছোট গ্রুপে অনুশীলন করতে পারবে টাইগাররা। তবে ১০ মার্চ থেকে সবাই ইচ্ছেমতো চলাফেরা করতে পারবে তামিম-মুশফিকরা। ১০ মার্চ কুইন্সটাউনে যাবে বাংলাদেশ দলের সদস্যরা। সেখানে অনুশীলন চলবে টানা ৫ দিন। 

১৬ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে প্রস্তুতি ম্যাচ। সেখান থেকে ড্যানেডিন যাবে দল। ২০ মার্চ প্রথম ওয়ানডে দিয়ে শুরু হবে সিরিজ। 

 news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

অনলাইন ডেস্ক

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

অসুস্থ মাকে বাঁচাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান পেসার শাহাদাত হোসেন । তার মা ক্যানসারে আক্রান্ত। তবে ক্রিকেটে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ আছেন বাংলাদেশের এই পেসার। তিনি বোর্ডের কাছে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে আবেদন জানিয়েছেন।  

শাহাদাত জানান, ‘আমার শাস্তির মেয়াদ কমাতে দরখাস্ত লিখে সম্প্রতি বোর্ডের কাছে জমা দিয়েছি। বাকিটা এখন বোর্ডের বিষয়। আমি প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে শিগগিরই ফিরতে চাই। আমার অর্থের খুব প্রয়োজন। আমার মা মরণব্যাধি ক্যানসারে আক্রান্ত। তার ওষুধ কিনতে আমি হিমশিম খাচ্ছি। আমি ক্রিকেট ছাড়া আর কিছুই জানি না।’

আরাফাত সানিকে পেটানোর ঘটনায় নিষিদ্ধ শাহাদাত আরও বলেন, ‘ওই ঘটনার জন্য আমি অনুতপ্ত। আমি বিসিবিকে আশ্বস্ত করতে চাই– আমাকে সুযোগ দিলে কখনও এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি করব না। আর যদি করে ফেলি তো, বিসিবিকে আর মুখ দেখাব না। ’


প্রেমিকের আশ্বাসে স্বামীকে তালাক, বিয়ের দাবিতে অনশন!

মেসি ম্যাজিকে সহজেই জিতল বার্সা

দোয়া কবুলের উত্তম সময়

রোনালদোর গোলেও হোঁচট খেল জুভেন্টাস


উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে জাতীয় লিগের ম্যাচে সতীর্থ খেলোয়াড় আরাফাত সানিকে মারধর করে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন ক্রিকেটার শাহাদাত। একই সঙ্গে তাকে তিন লাখ টাকা জরিমানাও করে বিসিবি।

এর আগেও ২০১৬ সালে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন ক্রিকেটার শাহাদাত। গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। বিষয়টি সে সময় আদালতেও গড়িয়েছিল। 

বাংলাদেশের হয়ে ৩৮টি টেস্ট, ৫১টি ওয়ানডে ও ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন শাহাদাত।  টেস্টে ৭২, ওয়ানডেতে ৪৭ ও টি-টোয়েন্টিতে ৬ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। ২০১৫ সালের পর আর জাতীয় দলে দেখা যায়নি এই ক্রিকেটারকে। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর