রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০২ ঘণ্টা ০৮ মিনিট আগে

বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

নাটোর প্রতিনিধি

বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

অপরিনত বয়সে প্রেম। মোবাইলের মাধ্যমে যোগাযোগ। দুই জনের সম্মতিতে হতে চলেছে বিয়ে। গতকাল বুধবার দিবাগত গভীর রাতে প্রেমিকার বাড়িতে প্রেমিকের অবস্থানকালীন সময়ে এলাকাবাসীর হাতে আটক হয় ওই প্রেমিক-প্রেমিকা। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের রওশনপুর উত্তরপাড়া গ্রামে। 

প্রেমিকা রিমা (১৭) ওই এলাকার জিনাত আলীর মেয়ে ও মৌখাড়া ইসলামীয়া মহিলা অনার্স কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী এবং প্রেমিক মিঠু আহম্মেদ (২০) পাশ্ববর্তী তেলটুপি মধ্যপাড়া গ্রামের আলাল উদ্দিনের ছেলে। রিমার চাচা আমজাদ হোসেন জানান, এক বছর আগে থেকে তাদের মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। এক পর্যায়ে গতকাল বুধবার রাত ২টার দিকে পাশের বাড়ির পুকুর পাড়ে একসঙ্গে গল্প করছিল। এসময় পুকুরের মালিক তাদের দুইজনকে দেখতে পায়। পুকুর মালিকের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। পরে তাদেরকে এলাকাবাসী আটক করে বাড়িতে নিয়ে আসে। দুই পরিবারের সমঝোতায় তাদের বিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন বলেন, রিমা ও মিঠুর বাবা মাকে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যলয়ে আনা হয়েছে। ওই দুই প্রেমিক যুগলের বাল্যবিয়ে প্রতিহত করে তারা প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে হবে না মর্মে উভয় পরিবারের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়েছে।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/ডিএ 

মন্তব্য