মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৪ মিনিট আগে

এবারের বিপিএলে ১৮১ জন দেশি, ৪৩৯ বিদেশি

অনলাইন ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০১৯ কে সামনে রেখে ঢাকার একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল প্লেয়ার্স ড্রাফট। ১৮১ জন দেশি ক্রিকেটার আর ৪৩৯ জন বিদেশি ক্রিকেটারের মধ্যে সেরাদের নিয়ে দল গড়েন অংশগ্রহণকারী চার দল।

তারকা বহুল দল গড়েছে এবার ঢাকা। এ প্লাস ক্যাটাগরি থেকে মাশরাফি, তামিম আর শহীদ আফ্রিদি তিনজনকেই দলে ভিড়িয়েছে দলটি।

আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক পার্থ বণিক জানাচ্ছেন- বহু প্রতীক্ষিত বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। প্রথম ডাকেই খুলনার শিবিরে মুশফিক, ঢাকায় তামিম আর চট্টগ্রামে নাম লেখালেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাকি চার দলের মধ্যে এ ক্যাটাগরি থেকে লিটনকে রাজশাহী, মুস্তাফিজকে রংপুর, সৌম্যকে কুমিল্লা আর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে দলে টেনে নেয় সিলেট।

বিদেশিদের মধ্যে এবার ১১ জন এ প্লাস ক্যাটাগরিতে। তবুও গেলবারের মতো এবার নেই বড় তারকাদের ভিড়। রাইলি রুশো আর মোহাম্মদ আমিরকে দলে ভিড়িয়ে টিমকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করেছে খুলনা। ঢাকায় থিসারা পেরেরা, শহীদ আফ্রিদি, রংপুরে মোহাম্মদ নবী আর চট্টগ্রামে ক্রিস গেইলস উল্লেখযোগ্য।

দল পাবেন কিনা এমন শঙ্কা উঠলেও শেষ পর্যন্ত দশম ডাকে মাশরাফি বিন মর্ত্তুজাকে দলে ভেরায় ঢাকা প্লাটুন্স। যদিও এজন্য বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলকে হতে হয়েছে নমনীয়। উঠিয়ে দিতে হয়েছে প্রতি দলে একজন করে এ প্লাস ক্যাটাগরির ক্রিকেটার নেওয়ার বাধ্যবাধকতা।

ড্রাফট শেষে এ বিষয়ে কথা বলেন ঢাকার কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দীন।

তিনি বলেন, মূলত ডাকার মতো কোনো সুযোগ ছিল না। কারণ আমি এ প্লাস ক্যাটাগরির প্লেয়ার একজনকেই নিতে পারব। সে কারণে ডাকতে পারিনি। কারণ প্রথমে যেহেতু তামিমকে পিক করেছি।

ছয় গ্রেডে বিভক্ত দেশি ক্রিকেটাররা এবার পাচ্ছেন সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা থেকে সর্বনিম্ন ৫ লাখ টাকা।

অন্যদিকে বিদেশিদের সর্বোচ্চ এক লাখ ডলার থেকে সর্বনিম্ন পারিশ্রমিক ধরা হয়েছে ২০ হাজার ডলার। প্রতিটি দল দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বনিম্ন নয়জন থেকে নিতে পারছেন সর্বোচ্চ ১১ জনকে।

অন্যদিকে বিদেশিদের বেলায় সংখ্যাটা সর্বনিম্ন ৬ থেকে সর্বোচ্চ ৮।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য