সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৪ মিনিট আগে

ছাত্রীদের যৌন হয়রানি, বিক্ষোভে উত্তাল মেডিকেল স্কুল

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট প্রতিনিধি

ছাত্রীদের যৌন হয়রানি, বিক্ষোভে উত্তাল মেডিকেল স্কুল

বাগেরহাট মেডিকেল এ্যাসিষ্ট্যান্ট টেনিং স্কুল (ম্যার্টস) কর্মচারীদের হাতে ছাত্রীদের যৌন হয়রানির প্রতিবাদে সোমবার রাত থেকে চলা বিক্ষোভ আজ (মঙ্গরবার) দ্বিতীয় দিনেও অব্যাহত রয়েছে।

সকালে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে। এই অবস্থায় প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ কর্মচারীদের হাতে ছাত্রীদের যৌন হয়রানির ঘটনা খতিয়ে দেখতে ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

তবে, শিক্ষার্থীরা ক্লাশ বর্জন করে অভিযুক্ত কর্মচারীদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বহিস্কার ও শাস্তিসহ ৬ দফা দাবি আদায়ে অনড় রয়েছে।

সোমবার রাত সাড়ে সাতটা থেকে শিক্ষার্থীরা কর্মচারীদের হাতে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে অভিযুক্ত কর্মচারীদের বহিস্কার ও শাস্তিসহ ৬ দফা দাবিতে শহরের মুনিগঞ্জ এলাকায় ম্যার্টসের ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ শুরু করে। চরম উত্তেজনার মধ্যে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মঙ্গলবারের মধ্যে ৬ দাবি আদায়ে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

ছাত্রীদের যৌন নির্যাতনের সাথে জড়িত কর্মচারীদের বহিস্কার ও শাস্তি নিশ্চিত করা ছাড়াও আন্দেলনরত শিক্ষার্থীদের ৬ দফা দাবীর মধ্যে রয়েছে, পুরুষ কর্মচারীদের ছাত্রীদের হোস্টেল ও পরিক্ষার হলে প্রবেশাধিকার না দেওয়া, অধ্যক্ষের ক্যাম্পাসে থাকা এবং শিক্ষার্থীতের ওপর কর্মচারীদের খরবদারি বন্ধ করার দাবি জানিয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এদিকে বাগেরহাট মেডিকেল এ্যাসিষ্ট্যান্ট টেনিং স্কুলের অধ্যক্ষ ডা. মো. আব্দুর রকিব জানান, কর্মচারীদের হাতে মেয়ে শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির ঘটনা তদন্তে রাতেই ডা. সমিরকে প্রধান করে ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী ৪৮ ঘণ্টা অর্থাৎ বুধবারের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

রিপোর্ট পাওয়ার পর ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন অধ্যক্ষ।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহাতাব উদ্দিন জানান, রাতে মেডিকেল স্কুলের শিক্ষার্থীরা হোস্টেল ছেড়ে কর্মচারীদের হাতে মেয়ে শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির প্রতিবাদে আন্দোলন দ্বিতীয় দিনেও মতো চলছে। কোনো অপ্রতিকর ঘটনা এড়াতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য