বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১৪ মিনিট আগে

আবরার হত্যাকাণ্ড

২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করল বুয়েট

অনলাইন ডেস্ক

 ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করল বুয়েট

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করেছে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে এনে ছয় শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বুয়েটের বোর্ড অব রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিন সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক ও বোর্ড অব ডিসিপ্লিন অ্যান্ড রেসিডেন্সের সদস্য সচিব এই তথ্যের নিশ্চিয়তা দিয়েছেন। এরই মধ্যে জারি করা হয়েছে বহিষ্কারাদেশ সংক্রান্ত একটি নোটিশ। নোটিশে বলা হয়, আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিন উক্ত ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ২৬ জনকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করে। পুলিশের অভিযোগপত্র অনুযায়ী তাদের মধ্যে ২৫ জন অভিযুক্ত। এ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি প্রদান করা হয়েছে ছয় শিক্ষার্থীকে।

আজীবন বহিষ্কারকৃত শিক্ষার্থীরা হলেন, মেহেদী হাসান রবিন, মো. অনিক সরকার, মো. মনিরুজ্জামান মনির, ইফতি মোশাররফ সকাল, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মেহেদী হাসান রাসেল, মো. মুজাহিদুর রহমান, এহতেশামুল রাব্বী, মুনতাসির আল জেমি, এএসএম নাজমুস সাদাত, মো. শামীম বিল্লাহ, মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম, ইশতিয়াক আহমেদ মুন্না, হোসাইন মোহাম্মদ তোহা, মুজতবা রাফিদ, মো. মিজানুর রহমান, মো আকাশ হোসেন, মো. আশিকুল ইসলাম, এস এম মাহমুদ, অমিত সাহা, মাজেদুর রহমান, শামসুল আরেফিন, মোর্শেদ উজ জামান মণ্ডল, মুহতাসিম ফুয়াদ, মোয়াজ আবু হোরায়রা। পুলিশের অভিযোগপত্রে তাদের মধ্যে আশিকুল ইসলামের নাম ছিল না। 

এ ছাড়াও আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ততা বিবেচনায় এনে ছয় শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়। তারা হলেন, সাখাওয়াত ইকবাল অভি, আবু নওশাদ সাকিব, মোহাম্মদ গালিব, সাইফুল ইসলাম, মো ইসমাইল, শাওন মিয়া। 

এই বিষয়ে বুয়েট ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান জানান, 'আমরা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি ১৬ নভেম্বর রাতে। কয়েকবার এই বিষয় নিয়ে সভা করা হয়েছে। সর্বশেষ সভায় ২৬ শিক্ষার্থীকে আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অপরাধে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ছাড়াও এই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা থাকায় ছয় শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়েছে।'

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/ডিএ

মন্তব্য