রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০১ মিনিট আগে

পেঁয়াজের জোগান বাড়ায় দাম কমছে শুরু করেছে

অনলাইন ডেস্ক

পেঁয়াজের জোগান বাড়ায় দাম কমছে শুরু করেছে

বড় বড় আমদানির চালান আসতে শুরু করায় পেঁয়াজের জোগান বাড়ছে বাজারে। সেই সঙ্গে বাড়ছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পেঁয়াজের ট্রাকও। কৃষকের ঘরে উঠছে মৌসুমের নতুন পেঁয়াজ। সব মিলে পেঁয়াজের দামে লাগাম পড়ছে।

সরেজমিন দেশের বৃহত্তম পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জ, খুচরা বাজার কাজীর দেউড়ি, রিয়াজউদ্দিন বাজার, আগ্রাবাদে টিসিবির ট্রাক সেল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে রোববার (১ ডিসেম্বর) খাতুনগঞ্জের বিএসএম গ্রুপের দ্বিতীয় চালানে চীন ও মিশর থেকে এসেছে ১৯ কনটেইনারে ৫৪১ টন পেঁয়াজ। গত ২৬ নভেম্বর এসেছিল চীন থেকে ২০ কনটেইনারে ৫৮০ টন।

বিএসএম গ্রুপের চেয়ারম্যান আবুল বশর চৌধুরী জানান, পেঁয়াজ পচনশীল পণ্য। তারপরও সব খরচ যোগ করে আমরা ন্যূনতম লাভে প্রথম ও দ্বিতীয় চালান সারা দেশের পাইকারদের মধ্যে বিক্ষিপ্তভাবে বিক্রি করেছি। ২০-৪০ টনের বেশি কোনো পাইকারকে দেওয়া হয়নি। এর ফলে বাজারে পেঁয়াজের দামে কিছুটা হলেও প্রভাব পড়েছে।

তিনি বলেন, ভারত থেকে যতদিন পেঁয়াজ আমদানির প্রক্রিয়া শুরু না হচ্ছে ততদিন আমরা সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে পেঁয়াজ আমদানি করব।

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি করছেন অনেকেই। এর মধ্যে একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বড় গ্রুপগুলো বড় বড় চালান আনছে পেঁয়াজের। এটি দেশে পৌঁছা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। তাদের পাশাপাশি এখন কুইক রেন্টাল পদ্ধতির মতো ছোট ছোট আমদানিকারকদের পেঁয়াজ আমদানিতে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। ৫০ জন আমদানিকারক যদি ৫০০ কনটেইনার করে আনে তাহলে বাজার দ্রুত স্থিতিশীল হবে।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল 

মন্তব্য