'একজন ২ কেজির বেশি পেঁয়াজ কিনতে পারবে না'

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি প্রতিনিধি

'একজন ২ কেজির বেশি পেঁয়াজ কিনতে পারবে না'

রাঙামাটিতে শুরু হয়েছে ৪৫টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি কার্যক্রম। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় শহরের রিজার্ভ বাজার এলাকায় ভ্রম্যমাণ গাড়িতে পেঁয়াজ বিক্রি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন রাঙামাটি অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক এস এম শফি কামাল।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশের মতো রাঙামাটিতেও পেঁয়াজের বাজারে প্রভাব পরে। বেশি দাম, চাহিদা অনেক, রয়েছে পর্যাপ্ত পেঁয়াজের ঘাটতি। তাই সুযোগ বুঝে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল করে তোলে। এতে বৃদ্ধি পায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তি। বর্তমান বাজারে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে- কেজি প্রতি ১৮০ থেকে ২০০ টাকায়।

এছাড়া তুরস্কের বড় পেঁয়াজ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৪৫ থেকে ১৬০ টাকা পর্যন্ত। যা সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে।

তাই রাঙামাটিবাসীর পেঁয়াজের দুর্ভোগ কমাতে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

রাঙামাটি অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক এস এম শফি কামাল বলেছেন, রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ট্রেডিং
করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) মাধ্যমে রাঙামাটি শহরের চারটি বাজারে কেজি প্রতি ৪৫টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মানুষের চাহিদা অনুযায়ী পেঁয়াজ সংগ্রহ করতে পারবে। তবে এ সুযোগ বিভিন্নভাবে ব্যবহার যাতে করতে না পারে তার জন্য একটি সীমা বেধে দেওয়া হয়েছে।

যেমন- একজন ব্যক্তি ২ কেজির অধিক পেঁয়াজ ক্রয় করতে পারবে না। আপাতত ১০ মেট্টিক টন পেঁয়াজ আনা হয়েছে। এ কার্যক্রম চলমান থাকবে। চট্টগ্রাম থেকে এ পেঁয়াজ সরবারহ করা হচ্ছে। রাঙামাটির সাত লাইসেন্সভূক্ত ব্যবসায়ীকে দশ মেট্টিক টন পেঁয়াজ দেওয়া হচ্ছে। যাতে তারা স্থানীয় বাজারের চাহিদা মেটাতে পারে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য