ছবিতে ছবিতে সৌদির বরফ

মোহাম্মদ আল-আমীন, সৌদি আরব

ছবিতে ছবিতে সৌদির বরফ

মরুভূমি রাতারাতি বদলে গেল বরফে। এটা সৌদি আরবে বিরল-ই বটে। বালির দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রার তারতম্য হয়েই থাকে। কিন্তু শূন্যের এতটা নীচে? হঠাৎ ১৮ থেকে ৩ ডিগ্রিতে নেমে আসা মরুর দেশের চিত্র তুলে ধরেছেন নিউজ টোয়েন্টিফোরের সৌদি আরব প্রতিনিধি মোহাম্মদ আল-আমিন।

বরফে ঢেকে গেছে তপ্ত মরুভূমি। আনন্দে আত্মহারাও হয়ে মরুতে গাড়ি নিয়ে স্থানীয়রা।

বরফের চাদরে ঢেকে গেছে রাস্তার গাড়ি।

রুক্ষ, শুষ্ক মরুভূমি এভাবে রাতারাতি সুইজারল্যান্ড হবে ভাবেনি সৌদিরা। তাই মুঠোফোনের ক্যামেরায় দৃশ্য ধারণের চেষ্টা।

খুশিতে আত্মহারা হয়ে বরফ হাতে খেলায় মেতেছেন তিনি।

বরফের দেশের মতোই রাস্তা ঢেকে গেছে বরফে। এ যেন সুইজারল্যান্ড।

রাস্তার ধারে গাড়ি ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে হয়তো আলপনা আঁকার চেষ্টা।

তাপমাত্রা ১৮ থেকে ৩ ডিগ্রিতে নামায় তপ্ত মরুভূমি এখন বরফে ঢাকা।

এমন আগে এমন কোনো দিন ঘটেনি। তাই তো রাস্তায় নেমে উল্লাস।

আকাশ থেকে বরফ পড়ার দৃশ্য।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশিদের ভিসা নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদক

দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশিদের ভিসা নিষেধাজ্ঞা

বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।  শুক্রবার দেশটিতে থাকা বাংলাদেশ দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় আগত যাত্রীদের মধ্যে কোভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্তের হার বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে দক্ষিণ কোরিয়া সরকার বাংলাদেশি নাগরিকদের উপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। ১৬ এপ্রিল থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারি ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে গত বছরের ২৩ জুন থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য নতুন ভিসা নিষেধাজ্ঞা এবং অনিয়মিত বিমান চলাচল স্থগিত করে দক্ষিণ কোরিয়া সরকার। এর ফলে কোরিয়া গমনেচ্ছু বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী এবং কর্মীর শিক্ষা ও কর্মজীবন হুমকির মুখে পড়ে।

পরে পরিস্থিতি বিবেচনায়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সিউলে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস শুরু থেকেই এই ভিসা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে।

সরকারের নিরবচ্ছিন্ন কূটনৈতিক প্রচেষ্টার ফলে দীর্ঘ ৮ মাস পর বাংলাদেশের নাগরিকদের ওপর আরোপিত ভিসা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয় দক্ষিণ কোরিয়া। এ সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পুনরায় প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দক্ষিণ কোরিয়া গমনেচ্ছু বাংলাদেশি নাগরিকরা ঢাকাস্থ দক্ষিণ কোরিয়ার দূতাবাসের মাধ্যমে ভিসার আবেদন শুরু করেন।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ভাইয়ের বিরুদ্ধে ভাই হত্যার অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ভাইয়ের বিরুদ্ধে ভাই হত্যার অভিযোগ

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের স্যাক্রামেন্টো কাউন্টি এলাকায় নিজের ভাইকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক বাংলাদেশি যুবকের বিরুদ্ধে।

স্যাক্রামেন্টো কাউন্টি পুলিশ জানিয়েছে, তদন্তের পর আকরাম হুসেইন নামের ৩০ বছর বয়সী ওই তরুণকে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাকে কাউন্টি জেলে পাঠানোর পর ১ লাখ ডলারের বিনিময়ে জামিন নিয়ে বের হন।

স্থানীয় প্রবাসীরা জানিয়েছেন, ৮ মার্চ আনোয়ার হুসেইন নামের এক ২৭ বছর বয়সী তরুণ মারা যান। তিনি ডাউন সিন্ড্রোমে আক্রান্ত ছিলেন। সেদিন পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বাংলাদেশি পরিবারটির সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

কাউন্টি পুলিশ বুধবার বিবৃতিতে জানায়, আকরামের আচরণ তাদের কাছে সন্দেহজনক মনে হয়। আনোয়ারের ব্যাপারে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তিনি ডাউন সিন্ড্রোম নামের এক প্রকার জেনেটিক সমস্যায় আক্রান্ত ছিলেন।

কীভাবে, কোথায় আনোয়ার মারা গেছেন, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি পুলিশ।

আরও পড়ুন


গাজীপুর করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪ জনের মৃত্যু

নওগাঁর মাঠে মাঠে দুলছে কৃষকের স্বপ্ন

নওগাঁয় সিন্ডিকেটের হাতে জিম্মি চালের বাজার, বাড়ছে সব ধরণের চালের দাম

নওগাঁয় বিদেশি ফল রক মেলন চাষের উজ্জল সম্ভাবনা


স্থানীয় কয়েকজন প্রবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মারা যাওয়ার সময় আনোয়ার নর্থ হাইল্যান্ডসের বাড়িতে ছিলেন। আকরামও ওই বাড়িতে থাকেন। গত জানুয়ারিতে তাদের বাবা মারা যাওয়ার পর দুজনে সেখানেই বসবাস করেন।

আকরাম-আনোয়ারের বোন হেইডি থম্পসন বলছেন, হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কিছুই তারা ধারণা করতে পারছেন না। তিনি বলেন, ‘আমি কাউকে দায় দিতে পারছি না। গোয়েন্দারা জানিয়েছেন আঘাত ছিল।’ ‘কোনো প্রমাণ আসার আগ পর্যন্ত আমরা আকরামের পাশে থাকব।’

হেইডি থম্পসন জানিয়েছেন, বিচ্ছেদ সংক্রান্ত ঝামেলার কারণে আকরাম-আনোয়ারের সঙ্গে দীর্ঘদিন তাদের যোগাযোগ ছিল না। বাবা মারা যাওয়ার পর জানুয়ারি থেকে আবার যোগাযোগ হচ্ছিল তাদের।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আটকে পড়া প্রবাসীদের ফিরিয়ে আনতে বিশেষ ফ্লাইট চালু হচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক

আটকে পড়া প্রবাসীদের ফিরিয়ে আনতে বিশেষ ফ্লাইট চালু হচ্ছে

করোনা মহামারিতে আটকে পড়া প্রায় এক লাখ প্রবাসীকে দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। চালু হচ্ছে আন্তর্জাতিক বিশেষ ফ্লাইট। আগামীকাল শনিবার থেকেই এই ফ্লাইট চালু করা হবে। 

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন। 

সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুরের জন্য এসব বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

আরও পড়ুন


ডেডিকেশন নিয়ে সংসার করেছি, কাজের জায়গাতেও একই রকম

জলবায়ু পরিবর্তন আইন করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড

ধর্মীয় একটি রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধ করছে পাকিস্তান

পাঁচ দেশের সঙ্গে বিশেষ ফ্লাইট শুরুর ঘোষণা


বেবিচক কার্যালয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রাথমিকভাবে পাঁচটি দেশে ১০০ থেকে ১২০টি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। 

জানা গেছে, অনেক প্রবাসী কর্মী ছুটিতে এসে আটকা পড়েছেন ১৩-১৪ মাস ধরে। তার পরেও অনেক চেষ্টা করে এবং অর্থ খরচ করে রি-এন্ট্রি পারমিট পেয়ে গন্তব্য দেশের শর্ত অনুযায়ী কোয়ারেন্টিনের হোটেল বুকিং দিয়েছেন।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

কানাডায় করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট, স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডায় করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট, স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান

কানাডায় ক্রমবর্ধমান হারে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অদূশ্য এই আতংকের সাথে যোগ হয়েছে নতুন ভ্যারিয়েন্ট যা ঠেকাতে সরকার কে অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই কানাডার অন্টারিও তে “স্টে হোম অর্ডার” রীতি মেনে চলতে হচ্ছে এবং কানাডার মন্ট্রিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কয়েকটি সিটি তে লকডাউন চলছে।

কানাডার প্রধান চারটি প্রদেশ ব্রিটিশ কলাম্বিয়া, অন্টারিও, মন্টিয়ল এবং আলবার্টায় নতুন করে ভেরিয়েন্টটি আতঙ্ক সৃষ্টি করছে এবং প্রতিদিনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গতবছর থেকেই যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার সীমান্ত বন্ধ রয়েছে, তবে জরুরী কিছু সার্ভিস চালু রয়েছে।

কানাডার চিফ পাবলিক হেলথ অফিসার ডক্টর থেরেসা ট্যাম কানাডার স্থানীয় গণমাধ্যম কে  জানিয়েছেন, কানাডা বর্তমানে কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ওয়েভ এর চূড়ান্ত অবস্থার দিকে এগুচ্ছে, যদিও কোভিড-১৯ এর বর্তমান এই বেড়ে যাওয়াকে অনেক প্রভিন্সের মেডিক্যাল অফিসাররা তৃতীয় ওয়েভ হিসেবে চিহ্নিত করছেন।

ডক্টর ট্যাম বলেন, মহামারীর এই বর্তমান বেড়ে যাওয়ার ভয়ংকর দিকটি হচ্ছে, আরো ছোঁয়াচে ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি। তিনি বলেন, এই অবস্থা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রভিন্স ও ফেডারেল থেকে নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলার কোন বিকল্প নেই।

ডক্টর ট্যাম উল্লেখ করেন, গত সাত দিনে ইনটেন্সিভ কেয়ার ইউনিট এ ভর্তি রুগীর সংখ্যা বেড়েছে শতকরা ২৭ ভাগ। তিনি আশংকা করছেন, জনগণ যদি সচেতন না হয়, তবে এ মাসের শেষে এ সংখ্যা কয়েক গুণ বেড়ে যাবে, যা মোকাবেলা করা কানাডার স্বাস্থ্য বিভাগের জন্য খুবই কষ্ট সাধ্য হয়ে দাঁড়াবে।

তিনি আরো বলেন, ৪০ থেকে ৫৯ বছরের মানুষের আক্রান্তের সংখ্যা এবং হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা আশংকাজনক হারে বেড়ে চলেছে। এছাড়াও গত তিন মাসে ইন্টেনশিভ কেয়ারে ১৮ থেকে ৩৯ বছরের আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণে দাঁড়িয়েছে। উল্লেখ্য, গত জানুয়ারিতে এ সংখ্যা ছিল শতকরা ৭ ভাগ এবং মার্চে এ সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে ১৫ ভাগে।

আরও পড়ুন


যে কারণে বাজেয়াপ্ত করা হলো সুয়েজ খালে আটকে পড়া সেই জাহাজ

শত্রুতা করে রাতে কেটে দেয়া হলো ১৮০ আমগাছের চারা

সেমিতে ম্যানচেস্টার সিটি, প্রতিপক্ষ নেইমার-এমবাপ্পের পিএসজি

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিতে রিয়াল, লিভারপুলের বিদায়


প্রদেশগুলোতে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে এবং স্বাস্থ্য সুবিধার স্বল্পতার কারণে হাসপাতালগুলোতে কিছুটা কম গুরুত্বপূর্ণ সব অপারেশন সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। এই সংকটকালীন মহামারীর সময়কে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধৈর্যের সাথে মোকাবেলা করার জন্য ডক্টর থেরেসা ট্যাম দেশবাসীর কাছে আহবান জানান।

উল্লেখ্য কানাডায় গতবছর মার্চ মাসে প্রথম কোভিড শনাক্ত হয় ব্রিটিশ কলম্বিয়াতে। তারপর থেকে এ পর্যন্ত ২৩ হাজারের ও বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেছেন।

কানাডা সরকার দেশটির নাগরিকদের সুস্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড কে আরো শক্তিশালী করতে ইতোমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তাছাড়া সকল নাগরিকরা যেন দ্রুত ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আসে সেদিকেও কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ৮৭ হাজার ১ শত ৫২ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ২৩ হাজার ৪শ’ ৪৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯ লাখ ৮৩ হাজার ৫শত ৬ জন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় সৌদিতে বিএনপির দোয়া

অনলাইন ডেস্ক

করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় সৌদিতে বিএনপির দোয়া

বিএনপির চেয়াপারর্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় সৌদিআরব বিএনপির উদ্যোগে ভার্চুয়াল মাধ্যমে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সোমবার এই দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মধ্যপ্রাচ্য সাংগঠনিক সমন্বয়ক আহমেদ আলী মুকিব। মাহফিল পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান তপন।

দোয়া মাহফিলে বিএনপির চেয়াপারর্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দের সুস্থতা কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সৌদিআরব বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব।

এতে অংশ নেন সৌদিআরব পূর্বাঞ্চল বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মীর ছিদ্দিকুর রহমান ইমরান কুয়েত বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব শওকত আলী,সাবের আহমেদ সৌদিআরব বিএনপির সহ সভাপতি কেফায়েত উল্লাহ কিসমত, আব্দুল মান্নান,এরশাদ আহমেদ, মঈন চৌধুরী, মোহাম্মদ আলী সহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর