রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ৫০ মিনিট আগে

৩০ জানুয়ারিই ঢাকায় ভোট

অনলাইন ডেস্ক

৩০ জানুয়ারিই ঢাকায় ভোট

ভোটের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই। তাই ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন পেছাতে যে রিট করা হয়েছে, তা সরাসরি খারিজ করা হলো। এমনই নির্দেশ নিয়েছেন আদালত।

এর আগে সরস্বতীপূজার কারণে নির্বাচন পেছানোর জন্য হাইকোর্টে একটি রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। আজ মঙ্গলবার রিটটি খারিজ করে দেওয়া হয়।

বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এর আগে ভোট গ্রহণের তারিখ পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে করা এ রিটে বলা হয়, ২৯ জানুয়ারি দিনের দ্বিতীয় ভাগ থেকে ৩০ জানুয়ারি আধাবেলা সরস্বতী পূজা। দেশের প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ পূজা হয়ে থাকে। ৩০ জানুয়ারি ভোট হলে পূজা পালন বাধাগ্রস্ত হবে। সংবিধান অনুযায়ী সকল নাগরিকের ধর্মপালনের স্বাধীনতা রয়েছে।

আদালতে অশোক কুমার বলেন, ভোটের কেন্দ্র স্কুল-কলেজে হয়। আর সরস্বতীপূজাও হয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয়। এ কারণে একই দিনে ভোট ও পূজা হলে সাধারণ মানুষের পূজা উদ্‌যাপন বাধাগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এটা সংবিধানেরও বিরোধী। তিনি আদালতে জানান, সরস্বতীপূজার তিথি ২৯ জানুয়ারি ৯টা ১০ মিনিট থেকে ৩০ জানুয়ারি বেলা ১১টা পর্যন্ত।

রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক ও নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী তৌহিদুল ইসলাম বলেন, গত বছর ডিসেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটির যে ক্যালেন্ডার আছে, সেখানে সরস্বতীপূজার ছুটি ২৯ জানুয়ারি বলা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের ক্যালেন্ডারেও একই কথা বলা হয়েছে। ছুটির তালিকা দেখেই ভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এখন আর ভোটের তারিখ পেছানোর সুযোগ নেই। কেননা, ২ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য