রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ৪৮ মিনিট আগে

সৃজিতকে 'হেয়' করলে থাপ্পড় মারব: মিথিলা

অনলাইন ডেস্ক

সৃজিতকে 'হেয়' করলে থাপ্পড় মারব: মিথিলা

মিথিলা-সৃজিত

কলকাতার জনপ্রিয় পরিচালক সৃজিতের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ানোর পর থেকেই সংবাদের শিরোনামে আছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। গত ৬ ডিসেম্বর সৃজিতকে বিয়ে করেন এ অভিনেত্রী। এতে অনেকের প্রশংসা যেমন পেয়েছেন, তেমনি সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন মিথিলা। তবে নিন্দুকের কথায় কখনোই কান দেননি এই অভিনেত্রী। বরং স্বামীকে নিয়ে একের পর এক প্রশংসা করে সামাজিকমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মিথিলা। সেই সঙ্গে সমালোচকদের বিদ্রুপাত্মক মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছেন।

এবার সৃজিতের সমালোচনাকারীদের কঠোর শাস্তি দেওয়ার ঘোষণা দিলেন মিথিলা। গত ১১ জানুয়ারি এক টুইট বার্তায় মিথিলা লিখেছেন, ‘আমি কোনো হিন্দু, ভারতীয় কিংবা কোনো পরিচালককে বিয়ে করিনি। আমি তাকেই বিয়ে করেছি; যিনি বুদ্ধিমান ও কোমল হৃদয়ের। তাই আমি তার পরিচয়ে গর্বিত। যে কেউ আমার বিয়ে অথবা আমার সঙ্গীকে হীন করার চেষ্টা করলে তাকে কষে থাপ্পড় মারা হবে।’

এর আগে মিথিলা লিখেন, ‘সৃজিতকে জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নেওয়ার দুটি কারণ। এক, আমরা দুজনই একই রকম পাগলাটে। দুই, আমরা অলস হয়েও সব সময় ব্যস্ত।’

চলচ্চিত্র নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ের পর ছোট পর্দা থেকে স্বল্প বিরতি নিয়েছেন রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। তিনি এখন পড়াশুনায় ব্যস্ত। পিএইচডির কাজ করছেন।

গত ৬ ডিসেম্বর সৃজিত মুখার্জি ও রাফিয়াত রশিদ মিথিলার বিয়ে হয়। এই বিয়ে তাদের দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন সৃজিতের মা ও বোন, সৃজিতের টলিউডের পরিবার রুদ্রনীল, শ্রীজাত, ইন্দ্রদীপ, যিশু, নীলাঞ্জনা, অনুপম ও পিয়া। এছাড়া মিথিলার পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। রেজিস্ট্রি করে বিয়ে হলেও পরে বেশ বড় করে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, মিথিলা-সৃজিতের পরিচয় হয় অর্ণবের একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজের মাধ্যমে। সেখানে থেকেই বন্ধুত্ব তারপর প্রেম।

এর আগে, ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী তাহসানের সঙ্গে মিথিলার বিয়ে হয়। তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয় ২০১৭ সালের জুলাই মাসে। তাদের সংসারে আইরা নামে এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

মন্তব্য