সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ০৫ মিনিট আগে

খোয়া গেল ১৫শ’, পেলেন ৫০০০

হুমায়ুন কবির সূর্য্য, কুড়িগ্রাম

খোয়া গেল ১৫শ’, পেলেন ৫০০০

সংসারের সম্বল তিন মাসের বয়স্কভাতার ১৫শ’ টাকা ছিনতাই হওয়ায় বৃদ্ধা মমিরণ বেওয়া’র কান্না স্তব্ধ করে দিয়েছিল এলাকার মানুষকে। সেই ছিনতাইকারীদের ধরতে না পারলেও বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটিয়েছেন কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির পুলিশ সুপারের পক্ষে বৃদ্ধা মমিরণ বেওয়ার হাতে নগদ ৫ হাজার টাকা তুলে দেন।

জানা যায়, গত বুধবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলা কমপ্লেক্সে অবস্থিত সমাজসেবা অফিস থেকে বৃদ্ধা মমিরণ বেওয়া তিন মাসের বয়স্কভাতার ১৫শ’ টাকা উত্তোলন করেন। এক যুবক টাকা গুণে দেওয়ার কথা বলে টাকা নিয়ে সটকে পরে। এরপর টাকা খুইয়ে অফিসের বারান্দায় বসে কাঁদতে থাকা মমিরণ বেওয়ার ছবি বিভিন্ন গণমাধ্যসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

এ ঘটনা জানতে পেরে তার পাশে এসে দাঁড়ান কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান।

মমিরণ বেওয়া ভূরুঙ্গামারী উপজেলার আন্ধারীরঝাড় ইউনিয়নের চরবারুইটারী গ্রামের মৃত ওমর আলীর স্ত্রী। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী তার জন্মসাল ১৯৩৭।

বয়সের ভাড়ে ন্যুইয়ে পড়া এই বৃদ্ধা স্বামী মারা যাওয়ার পর তিন ছেলের সাথে পার্শ্ববর্তী চর ধাউরাকুটি গ্রামে বসবাস করছেন।

আর্থিক সহযোগিতা পেয়ে আবেগ-আপ্লুত মমিরণ বেওয়া সাংবাদিকদের জানান, গরীব মানুষের জীবনে এমন ঘটনা যেন আর না ঘটে। ওই সামান্য টাকাই অনেক পরিবারের জন্য বড় সম্বল।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির জানান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান’র পক্ষে বৃদ্ধা মমিরণ বেওয়াকে নগদ ৫ হাজার টাকা ও দুটি কম্বল বিতরণ করা হয়।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য