মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ১৫ মিনিট আগে

তেলপড়া দিয়ে অচেতন করে নাতনীকে ধর্ষণ!

অনলাইন ডেস্ক

তেলপড়া দিয়ে অচেতন করে নাতনীকে ধর্ষণ!

তেলপড়া দেওয়ার কথা বলে গোয়াল ঘরে নিয়ে নাতনীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই নাতনী বর্তমানে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে। ওই নানার বয়স ৬০ বছর। শেরপুরের শ্রীবরদীর উপজেলার ঘটনা এটি।

কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের মলামারি পূর্বপাড়া গ্রামে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত নানা বদর আলীকে (৬০) আটক করেছে পুলিশ। থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নির্যাতিতার পরিবার জানান, ভিকটিম কাকিলাকুড়া বালিকা দাখিল মাদরাসায় অষ্টম শ্রেণিতে পড়ালেখা করে। ভিকটিমের নানার চাচাতো ভাই বদর আলী একই বাড়ির বাসিন্দা। বদর আলী ৩ ছেলে ২ মেয়ে। বদর আলী তাদের ঘরে যাতায়াত করে। প্রায় ৫/৬ মাস আগে ভিকটিমের সাথে তার প্রতিবেশী এক যুবকের সম্পর্ক চলছিল। এ সময় তার প্রেমিক তাকে বিয়ে করতে রাজী হয়নি।

আরও পড়ুন:অশ্লীল ছবি দেখিয়ে কিশোরিকে ধর্ষণ করল বাবা

এ নিয়ে তার নানা বদর আলী তাকে তার প্রেমিককে বিয়েতে রাজী করাতে তেলপড়া দেওয়ার কথা বলে তাকে গোয়াল ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় তার নাকে-মুখে তেলপড়া দিয়ে অচেতন করে ধর্ষণ করে। এভাবে কয়েকদিন ধর্ষণের পর বিষয়টি জানাজানির হলে হয়তো তার প্রেমিক তাকে বিয়ে করবে না এ ভয়ে সে ঘটনাটি গোপন রাখে। এতে ভিকটিম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। পরে তার শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন দেখে তার পরিবার তাকে ডাক্তারি পরীক্ষা করান। এতে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা রিপোর্ট পেলে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

আরও পড়ুন: নিজের মেয়েকে ধর্ষণ, জেল খেটে বেরিয়ে শিশু ধর্ষণ

এ নিয়ে আজ মঙ্গলবার শালিস করার আয়োজন করে ভিকটিমের পরিবার।

এ নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মিস্টার মিয়া জানান, তারা শালিসের কথা বলেছে। যেহেতু এটা শালিস যোগ্য না এজন্য শালিসে যাইনি। এ ব্যাপারে শালিস বৈঠকে কেউ না আসায় ভিকটিমের পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বদর আলীকে আটক করে।

আরও পড়ুন: ভাতিজির মেয়েকে ধর্ষণ করে ধরা বিএনপি নেতা

পরে ভিকটিমকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার জানান, এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আরও পড়ুন: চার বছর ধরে বোনকে ধর্ষণ করল দুই ভাই

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য