রাতে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে ‘খুন’

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি প্রতিনিধি

রাতে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে ‘খুন’

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে ভাগ্যধন চাকমা (৩৩) নামে এক যুবকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার সকালে বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের নাঙ্গলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক ওই গ্রামের বাসিন্দা মৃত বরুন বিকাশ চাকমার ছেলে।

নিহত ভাগ্যধন চাকমার স্ত্রী জবারাণী চাকমা অভিযোগ করে বলেন, গত সোমবার মধ্যে রাতে ৫/৬জনের একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের নাঙ্গলপাড়ার তাদের বাড়ি থেকে স্বামী ভাগ্যধনকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। কারা ডেকে নিয়ে গেছে, কেন ডেকে নিয়ে গেছে কিছু জানি না।

‘রাত পেরিয়ে ভোর হলে আমরা তাকে খুঁজতে বের হই। পরে বাড়ি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে স্বামীর ক্ষত-বিক্ষত মরদেহ পাওয়া যায়। এরপর পুলিশে খবর দেওয়া হয়।’

রাঙামাটির সাজেক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইসরাফিল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসে। সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করার পর। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্তের পর লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ বিষয়ে মামলা সংক্রান্ত কার্যক্রম চলছে বলে জানান ওসি।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সাভারে সেই বাগানের গাছ পরীক্ষায় জানা গেল গাঁজার!

অনলাইন ডেস্ক

সাভারে সেই বাগানের গাছ পরীক্ষায় জানা গেল গাঁজার!

প্রাচীরঘেরা একটি জমিতে গাঁজার মত দেখতে কিছু গাছের খোঁজ পায় পুলিশ। গাঁজা গাছ রোপণের  জন্য সন্দেহভাজন হিসাবে  জায়গার মালিক ও তার ছেলেকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হলেও সুনির্দিষ্ট প্রমাণের অভাবে পুলিশ তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।  কিন্তু  বাগানটি থেকে নমুনা সংগ্রহের করে তা অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ল্যাবে পরীক্ষার পর গাছগুলো গাঁজার বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ। 

সাভারের আশুলিয়ায় প্রাচীরঘেরা একটি জমিতে সন্ধান এসব গাঁজা গাছের সন্ধান পায় পুলিশ।

প্রাথমিক সন্দেহের পর গত ২৮ ফেব্রুয়ারি আশুলিয়ার খেজুরবাগান মোল্লা বাড়ি গলির সোহেল হোসেনের মালিকানাধীন প্রাচীরঘেরা ওই স্থানটি পুলিশ নজরদারিতে রাখে। পুলিশ যখন গাছগুলো গাঁছা বলে নিশ্চিত হয় তথক্ষণে বাড়ির মালিক ও ছেলে আত্মগোপনে চলে যায় বরে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছেও বলে জানায় পুলিশ।


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


সিআইডি ল্যাবের রিপোর্টের ভিত্তিতে সোমবার (৮ মার্চ) দুপুরে গাঁজা গাছগুলো কেটে জব্দ করেছে পুলিশ। এখবর নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুদীপ কুমার।

তিনি বলেন, গত সোমবার গাঁজা সদৃশ গাছের স্যাম্পল (নমুনা) পরীক্ষার জন্য ঢাকার সিআইডি ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল। 

গতকাল (রোববার ৭ মার্চ) রিপোর্টে সেগুলো গাঁজা বলে নিশ্চিত হই। পরে রাতে বাগানের মালিক সোহেল হোসেন ও তার ছেলেকে আসামি করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

আজ (সোমবার) সকালে গাঁজার গাছগুলো কেটে জব্দ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে আশুলিয়ার খেজুরবাগান মোল্লা বাড়ি গলি এলাকায় সোহেল হোসেনের জমিতে গাঁজা চাষের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এরপর থেকেই বাগানটি নিজেদের হেফাজতে রেখেছিল পুলিশ।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেওয়া হলো প্রতিবন্ধী নারীকে

ভাড়া দিতে না পারায় এন মল্লিক পরিবহনের ঢাকা (মেট্রো-ব-১৩-১৫২১) এসি বাস থেকে এক বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। রোববার কেরানীগঞ্জের রোহিতপুর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী গতকাল রাতেই নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এ ঘটনার একটি ভিডিও শেয়ার করেন। মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়।

ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা আছে ‘ভাড়া নিয়ে তর্কের জেরে এন মল্লিক পরিবহনের এসি বাস থেকে এই নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন!’

ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, এন মল্লিক নামের একটি বাস থেকে ছুড়ে ফেলা হয় বোরকা পরা ওই নারীকে। মাটিতে পড়ে তিনি অস্ফুট স্বরে গোঙাচ্ছিলেন। পরে স্থানীয় লোকজন গিয়ে তাঁকে মাটি থেকে তোলেন। ভিডিও চিত্রেই দেখা যায়, গাড়ির নম্বর ঢাকা মেট্রো ব-১৩-১৫২১। এন মল্লিক বাসটি গুলিস্তান-নবাবগঞ্জ রুটে চলাচল করে।

মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেওয়া ওই নারী বাক্‌প্রতিবন্ধী ছিলেন, তা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটি সূত্র গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে। সূত্রটি বলেছে, নারীকে ছুড়ে ফেলে দেওয়া বাসের চালকের সহকারীর নাম হাসান (২২)। তার বাড়ি নবাবগঞ্জের জয়কৃষ্ণ এলাকায়। চালক ছিলেন সবুজ মিয়া (৪০) নামের এক ব্যক্তি।


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজনকে ওই নারী তাকে বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দেওয়ার কারণ লিখে জানিয়েছেন। সেখানে ওই নারী লিখেছেন, ‘এন মল্লিক কোনাখোলা থেকে উঠাইসে। ভাড়া নাই। এন মল্লিক কোনো দিনও আমার থেকে ভাড়া নেয় না। এরা ভাড়া চায়। দিতে না পারায় এমুন ব্যবহার। এন মল্লিকের সবাই আমাকে চেনে। ও মনে হয় চিনে নাই। তাই বুজাবার চেষ্টা করসিলাম।’

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সাতক্ষীরায় জমি নিয়ে বিরোধে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

শাকিলা ইসলাম জুঁই, সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরায় জমি নিয়ে বিরোধে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

সাতক্ষীরায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই। রোববার দিবাগত রাতে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটার জগনান্দকাটি গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তি হলেন সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটার জগনান্দকাটি গ্রামের মজিদ মল্লিকের
ছেলে মন্তাজ মল্লিক (৩৫)।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী ওয়াহেদ মোর্শেদ জানান, নিহতের বাবা মজিদ মল্লিক তার ছেলেদের মধ্যে জমি ভাগবাটোয়ারা করে দিয়েছেন। বন্টনকৃত জমির সীমানা ও অবস্থান নিয়ে গত কয়েক মাস ধরে দুই ভায়ের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো।

তিনি আরও জানান, ছোট ভাই মন্তাজ মল্লিকের পাটকেলঘাটা বাজারের একটি গ্যারেজে মিস্ত্রির কাজ করতেন। রোববার রাত এগারটার দিকে কাজ শেষে তিনি বাড়িতে ফেরার উদ্দেশ্যে বাজার থেকে মোটরসাইকেলযোগে বের হন। বাড়ির পাশে এসে পৌঁছালে বড়ভাই শাহাজাহান মল্লিক দাঁ দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কোপান। 


সমালোচনা আমাদের কাজের সফলতা : কবীর চৌধুরী তন্ময়

পাবনায় থাকছেন শাকিব খান

সাধ্যের মধ্যে ৮ জিবি র‍্যামের রেডমি ফোন

কমেন্টের কারণ নিয়ে যা বললেন কবীর চৌধুরী তন্ময়


এতে তিনি গুরুতর আহত হন। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে খুলনা মেডিকোল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। এরপর খুলনায় নেয়ার পথে তিনি মারা যান। মন্জাজ মল্লিকের মরদেহ উদ্ধার করে সকালে ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ছোট ভাইয়ের

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ছোট ভাইয়ের

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার কুমিরা ইউনিয়নে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই। রোববার (৭ মার্চ) রাত ৯টার দিকে জগনন্দকাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহতের নাম মোস্তফা মল্লিক (৩৫)। তিনি জগনন্দকাটি গ্রামের মজিদ মল্লিকের ছেলে এবং পাটকেলঘাটা বাজারের একটি মাইক্রো গ্যারেজের মিস্ত্রি।

কুমিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান জানান, আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। বড় ভাই শাহজাহান মল্লিক দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ছোট ভাই মোস্তফা মল্লিককে। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।


পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে তখন তিস্তা চুক্তি: মমতা

যে দোয়া পড়লে বিশ্ব নবীর সঙ্গে জান্নাতে যাওয়া যাবে!

খুলনায় সওজ কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি, ক্ষোভ

৭ই মার্চের অনুষ্ঠান থেকে বেড়িয়ে গেলেন অথিতিরা


পাটকেলঘাটা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ জানান, জমি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলছিল। বড় ভাই কুপিয়ে ছোট ভাইকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মারুফা আক্তার বাদী হয়ে বড় ভাই শাহজাহান মল্লিক, তার স্ত্রী নাহার মল্লিক ও স্থানীয় বাবুল বিশ্বাসসহ অজ্ঞাত আরও পাঁচজনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

যশোরে ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রসীরা

অনলাইন ডেস্ক

যশোরে ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রসীরা

যশোরের অভয়নগরে নূর আলী ওরফে নূর আলী মেম্বার (৫০) নামে এক ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার ছেলে ইব্রাহিমও (১৬) গুলিবিদ্ধ হয়েছে। নিহত নূর আলী উপজেলার শুভরাড়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

রোববার (৭ মার্চ) রাত ৮টার দিকে শুভরাড়া ইউনিয়নের শুভরাড়া গ্রামের বাবুরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 


পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে তখন তিস্তা চুক্তি: মমতা

যে দোয়া পড়লে বিশ্ব নবীর সঙ্গে জান্নাতে যাওয়া যাবে!

খুলনায় সওজ কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি, ক্ষোভ

৭ই মার্চের অনুষ্ঠান থেকে বেড়িয়ে গেলেন অথিতিরা


অভয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, রোববার অভয়নগর থানা পুলিশের ৭ মার্চের আনন্দ উদযাপন অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যার পর মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়ি ফিরছিলেন নূর আলী ও তার ছেলে। শুভরাড়া ইউনিয়নের বাববুরহাট এলাকায় পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা কাছ থেকে তাদের গুলি করেন। মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান নূর আলী। তার ছেলে ইব্রাহিমের পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়।

ইব্রাহিমকে হাসপাতালে ভর্তির জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর