দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে হত্যা করল মা

অনলাইন ডেস্ক

দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে হত্যা করল মা

গান গাইতে গাইতে তিন শিশুকে হত্যা করা হয়েছে বরে এক মা'র বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। নিহত শিশুদের বয়স ৭ মাস (মেয়ে) , ১ বছর (মেয়ে) এবং ৩ বছর (ছেলে)। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার ফিনিক্সে ঘটনাটি ঘটে।

গণমাধ্যম সূত্র জানায়, ২২ বছর বয়সী ওই মায়ের নাম রেচেল হেনরি। নিজের দুই মেয়ে এবং এক ছেলেকে রেচেল খুন করেছেন। তবে সন্তানদের খুনের পরেও আশ্চর্যরকম নিরুত্তাপ রেচেল। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই নারীর মানসিক সমস্যা আছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি ওকলাহোমা থেকে ফিনিক্সে এসে ওঠে রেচেল। সেখানে একটি বাড়ির নীচের তলা ভাড়া নেয় সে। বাড়িওয়ালা এবং এক আত্মীয়ের উপস্থিতিতে সোমবার রাতে ওই বাড়িতেই তিন সন্তানকে এক এক করে ঠাণ্ডা মাথায় খুন করেন।

তদন্তে জানা গেছে, এক বছর বয়সী ছোট বোনকে খুন করার সময় তিন বছর বয়সী ছেলে মাকে আটকানোর চেষ্টা করেছিল। কিন্তু মায়ের গায়ের জোরের কাছে ছেলে নতি স্বীকার করে। এরপর ছেলেকে খাওয়ানোর নাম করে পাশের ঘরে নিয়ে গান গাইতে গাইতে তার গলার নলি কেটে দেন ওই নারী। যাতে কোনো চিৎকার অন্য কারও কানে না যায় সে কারণে গান গাইছিলেন ওই নারী।

এরপর রেচেল তার বোনের সঙ্গে লিভিং রুমে বসে গল্প করেন। কিছুক্ষণ পর তৃতীয় সন্তানকে খাওয়ানোর নামে ঘরের ভেতর যান তিনি। এই বাচ্চাটি সদ্যোজাত। ঘরের ভেতর ওই সন্তানকেও শেষ করে দেন তিনি। এই তিন সন্তানকে পরপর খুনের পর নিথর দেহগুলি সোফায় এমনভাবে শুইয়ে দেয় সে, যাতে মনে হয় তারা ঘুমোচ্ছে।

পুলিশ বলছে, সোমবার রেচেলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  নিয়মিত মাদক সেবন করেন রেচেল। 

জানা গেছে, রেচেলকে পুলিশি হেফাজতে নিওয়া হয়েছে। জেরা শুরু হতেই সে অপরাধ স্বীকার করেন তিনি। তবে কী কারণে তিন সন্তানকে খুন করেছেন তিনি তা এখনও জানা যায়নি।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য