বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ০২ ঘণ্টা ২৯ মিনিট আগে

বাড়ির ছাদ যেন সবুজ-শ্যামল মাঠ

ইমন চৌধুরী, পিরোজপুর

বাড়ির ছাদ যেন সবুজ-শ্যামল মাঠ

পিরোজপুরে দিনে দিনে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ‌‌‘ছাদ বাগান’। শহরে বসবাসরত মানুষ বাড়ির ছাদে গড়ে তুলছেন দৃষ্টি নন্দন ফলজ, ভেষজসহ বিভিন্ন ধরনের সবজির বাগান। এসব বাগানে উৎপাদিত ফল ও সবজি চাহিদা পূরণের পাশাপাশি ভূমিকা রাখছে রোগ নিরাময়ে।

ঢাকাসহ বড় বড় শহরের দেখাদেখি পিরোজপুর শহরেও বসবাসরত মানুষ বাড়ির ছাদে গড়ে তুলছেন দৃষ্টি নন্দন ফলজ, ভেষজসহ বিভিন্ন ধরনের সবজির বাগান। শহরে প্রায় ৭০টিরও বেশি বাড়ির ছাদে ছোট-বড় বাগান আছে। সবজি ও ফলের আবাদ করে পরিবারের নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা পূরণ করছেন সবাই। জেলা শহরের উকিলপাড়া, শিক্ষা অফিস রোড, সদর থানা, সিআইপাড়াসহ বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার বাড়ির ছাদ ঢাকা পড়েছে কৃষিতে।

শিক্ষা অফিস রোডের মিজানুর রহমান জানান, মাঠ ও ক্ষেতের মতো বাড়ির ছাদেও সারা বছর ধরে আবাদ হচ্ছে নানা রকম শাক-সবজি ও ফল-ফুল।

উকিলপাড়ার মাকুল খানম বলছেন, পরিবারের নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা পূরণ এবং প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বাড়ির ছাদে বাগান করা হয়েছে। বাড়ির ছাদে সফলভাবে শাক-সবজি, ফল-ফুল আবাদ দেখে আগ্রহী হচ্ছেন অনেকেই।

তবে বিষয়টিকে খুব ইতিবাচকভাবে দেখছে জেলার কৃষিবিদরা।

পিরোজপুর সদর উপজেলার কৃষি অফিসার শিপন চন্দ্র ঘোষ বলেন, বাড়ির ছাদের এ বাগান শুধু শখের বিষয় নয়, পরিবেশ রক্ষায়ও রয়েছে এর বড় ভূমিকা। অবশ্য ছাদের ওপর যেসব বাগান দেখা যায় তার অধিকাংশই অপরিকল্পিত। একটু পরিকল্পিতভাবে বাগান করা হলে এটি প্রাত্যহিক শাকসবজির চাহিদা মিটিয়ে পরিবেশ রক্ষায়ও দারুণ ভূমিকা রাখবে।

একটু পরিশ্রম আর পরিকল্পনায় বাড়ির কংক্রিটের ছাদ পরিণত হতে পারে সবুজ শ্যামল মাঠে। আর ছাদ বাগানের মাধ্যমে তাজা শাকসবজি, ফলমূলের চাহিদা পূরণ, গ্রীনহাউজ প্রতিক্রিয়া, পরিবেশ দূষণমুক্ত ও বায়োডাইভারসিটি সংরক্ষণ করা যায় বলে মনে করেন প্ররিবেশবিদরা।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য