খুলনায় খাদ্য কর্মকর্তার জামিন নামঞ্জুর

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা থেকে

খুলনায় খাদ্য কর্মকর্তার জামিন নামঞ্জুর

ঘুষের ১ লাখ টাকাসহ গ্রেপ্তার হওয়া খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার খুলনা জেলা দায়রা জজ (সিনিয়র স্পেশাল জজ) আদালতে জামিনের আবেদন করলে বিচারক মশিউর রহমান চৌধুরী শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করেন।

সরকারি গোডাউনে চাল সংগ্রহে মিলারদের কাছ থেকে ঘুষ নেওয়ার সময় গত ৯ জানুয়ারি গ্রেপ্তার হয় ইলিয়াস হোসেন। তারপর থেকেই তিনি কারাগারে রয়েছেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পিপি খন্দকার মজিবর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত
করেছেন।

দুদকের কর্মকর্তারা জানান, গত দুই বছরে খাদ্য পরিদর্শক ইলিয়াস হোসেনের ব্যাংক এ্যাকাউন্টে প্রায় ৩৭ লাখ টাকা জমা হয়েছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে শিক্ষক ধরা

অনলাইন ডেস্ক

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে শিক্ষক ধরা

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে স্কুলছাত্রীর অশ্লীল ছবিসহ ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ উঠেছে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আয়াতুল ইসলাম নামে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে নিশ্চিত করেন মিডিয়া অফিসার এএসপি আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া।

তিনি জানান, ২০১৮ সালে চট্টগ্রাম শহরের নিউরন ইংলিশ স্কুলের সাবেক শিক্ষক আয়াতুল ইসলাম (৩৫) ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর বাথরুমের কিছু অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে। ভিডিওটি তার বন্ধুদের পাঠিয়ে দেওয়া এবং ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তিন বছর ধরে মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেইল করে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে।


আল্লাহ ফেরআউনকেও সুযোগ দিয়েছিলেন ছেড়ে দেননি: বাবুনগরী

ইফতারের আগে দোয়া কবুলের জন্য যে আমল করা উচিত

কখন রোজা ভাঙলে গোনাহ হবে না

আল্লাহ ছাড় দেন, ছেড়ে দেন না


এএসপি জানান, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি দল শিক্ষক আয়াতুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। ওই শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদে সে নাবালিকা মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেইল করে যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন করার কথা স্বীকার করেছে।

তিনি আরও জানান, ওই শিক্ষকের মোবাইল ফোন থেকে মেয়েটির শতাধিক অশ্লীল ছবি উদ্ধার করা হয়েছে। তাছাড়া অভিযুক্ত শিক্ষকের ফেসবুকে ও ম্যাসেঞ্জারে শিশু ছাত্রীটির কুরুচিপূর্ণ অনেক অশ্লীল ছবি দেখা যায়। তার মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়।

ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান এএসপি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

হেফাজত নেতা শাখাওয়াত-ফখরুল-মঞ্জুরুল ৫ দিনের রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজত নেতা শাখাওয়াত-ফখরুল-মঞ্জুরুল ৫ দিনের রিমান্ডে

পল্টন থানার নাশকতার মামলায় হেফাজত নেতা শাখাওয়াত হোসেন রাজী, ফখরুল ইসলাম ও মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী ৫ দিন করে রিমান্ডে।

বিস্তারিত আসছে...

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আবদুল মতিন খসরুর সম্মানে সুপ্রিম কোর্ট বসছে না আজ

অনলাইন ডেস্ক

আবদুল মতিন খসরুর সম্মানে সুপ্রিম কোর্ট বসছে না আজ

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি সাবেক আইনমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল মতিন খসরুর প্রতি সম্মান দেখিয়ে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগে ভার্চ্যুয়ালি বিচারকার্য পরিচালিত হবে না।

বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগের ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এ কথা বলেন।

এর আগে অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচার কাজ বন্ধ রাখার জন্য প্রধান বিচারপতিকে অনুরোধ জানান।

এসময় প্রধান বিচারপতি বলেন, এ বিষয়ে আমি আগেই আপিল বিভাগের সকল বিচারপতির সঙ্গে আলোচনা করেছি। সব বিচারপতিই কোর্ট বন্ধ রাখতে সম্মতি দিয়েছেন। কোর্ট বসবে না। এ সময় বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল এমন সিদ্ধান্তের জন্য আইনজীবীদের পক্ষ থেকে প্রধান বিচারপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন


সুপ্রিম কোর্টে আবদুল মতিন খসরুর দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন

আলেম-ওলামাদের মিথ্যা মামলা ও হয়রানির অভিযোগে হেফাজতের বিবৃতি

কানাডায় করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট, স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান

যে কারণে বাজেয়াপ্ত করা হলো সুয়েজ খালে আটকে পড়া সেই জাহাজ


প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আবদুল মতিন খসরু সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি ছিলেন। এটা অনেক সম্মানের। শেরে বাংলা একে ফজলুল হকও এই বারের প্রেসিডেন্ট ছিলেন। সেজন্য কোর্ট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (১৪ এপ্রিল) ৪টা ৫০ মিনিটে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে আবদুল মতিন খসরু ইন্তেকাল করেন।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

আসামি ছিনতাইয়ের মামলায় দুই দিনের রিমান্ডে ডাকসুর আকতার

অনলাইন ডেস্ক

আসামি ছিনতাইয়ের মামলায় দুই দিনের রিমান্ডে ডাকসুর আকতার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আসামি ছিনতাইয়ের অভিযোগের মামলায় তার রিমান্ড  মঞ্জুর করে আদালত।

বুধবার রিমান্ড শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ আকতারকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের আবেদন করেন। পরে শুনানি শেষে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

মামলায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, ঢাবি শাখার সাবেক সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা, বর্তমান সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেন, ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান, সোহরাব ও যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আতাউল্লাহসহ ১৯ জনকে আসামি করা হয়।

গতকাল ডাকসুর সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক ও ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আকতার হোসেনকে ঢাবির ক্যাম্পাস থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। 

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

শরিফউল্লাহ রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

শরিফউল্লাহ রিমান্ডে

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-প্রচার সম্পাদক মুফতি শরিফউল্লাহর একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ বুধবার (১৪ এপ্রিল) তাঁকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে তাঁকে সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন যাত্রাবাড়ী থানার পরিদর্শক আয়ান মাহমুদ।

শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদ তার একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার মীর হাজিরবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় মুফতি শরিফউল্লাহকে।


করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার লকডাউনের নামে চালাচ্ছে শাটডাউন: ফখরুল

আব্দুল মতিন খসরু লাইফ সাপোর্টে

ওবায়দুল কাদের কিংবা জাহিদ মালেক যদি এই ডিগ্রিটা পেতেন, তখন কী করতাম: সুমন্ত আসলাম

শ্রীপুরে মসজিদে অচেতন থাকা ব্যক্তিকে উদ্ধা


জানা গেছে, মুফতি শরিফউল্লাহ হেফাজতের কেন্দ্রীয় সহ-প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। ২০১৩ সালের ৫ মের তাণ্ডব ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে হেফাজতের সহিংসতার সঙ্গে তাঁর যোগসূত্র রয়েছে বলে মনে করছে ডিবি। তাঁকে বুধবার (১৪ এপ্রিল) আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে ডিবি সূত্র জানায়।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর