বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ০৬ ঘণ্টা ২৯ মিনিট আগে

ঘুমন্ত বন্ধুর গলায় কোপ, বন্ধুর ফাঁসি

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ঘুমন্ত বন্ধুর গলায় কোপ, বন্ধুর ফাঁসি

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ২০১৭ সালে বন্ধু শরীফ হোসেনকে ঘুমন্ত অবস্থায় কুপিয়ে হত্যার অপরাধে মো. মিলনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুর তিনটার দিকে জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ মামলার রায়ে এ আদেশ দেন। এ সময় আসামি আদালতের ডকে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামি মিলন ও নিহত শরীফ ইটভাটায় কাজ করতেন। তারা দুইজন বন্ধুও। ফলে শরীফের বাড়িতে প্রায় যাতায়াত করতেন মিলন। কিন্তু ঘরে বিবাহযোগ্য বোন থাকায় শরীফ একদিন মিলনকে ডেকে যখন-তখন তার বাড়িতে আসতে নিষেধ করেন। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হন মিলন। এক পর্যায়ে ২০১৭ সালের ২৮ মে বিকালে সুবর্ণচরের চর মহি উদ্দিন গ্রামে নিজ ঘরের বারান্দায় ঘুমন্ত অবস্থায় মিলন-শরীফকে কোপ দেয়।

এতে তার গলার এক পাশ কেটে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। পরে তাকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক শরীফকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ওই রাতেই নিহতের ছোট ভাই মো. আরিফ হোসেন বাদী হয়ে মিলনকে আসামি করে চরজব্বার থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে মিলনকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দায়ের করেন।

পাবলিক প্রসিকিউটর গুলজার আহমেদ জুয়েল মিলনের মৃত্যুদণ্ডের কথা নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, আদালত মোট ২৪জন সাক্ষীকে পরীক্ষা করেন। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে মামলার একমাত্র আসামি মো. মিলনের বিরুদ্ধে আজ আদালত মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। মামলায় আসামি পক্ষে শুনানি করেন শিবনাথ ভৌমিক।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য