বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ১৫ মিনিট আগে

'শিল্পীদের রাজনীতি নয় অভিনয় নিয়েই থাকতে বললেন'

অনলাইন ডেস্ক

'শিল্পীদের রাজনীতি নয় অভিনয় নিয়েই থাকতে বললেন'

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, চলচ্চিত্রের নায়ক, নায়িকা, প্রযোজক, পরিচালকদের ঘর হলো এফডিসি। সেখানে থেকে শাবানা, ববিতা, রোজিনারা কিংবদন্তী হয়েছেন। সেই এফডিসি আজ ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। এর জন্য রাজনীতির মানুষরা দায়ী নয়, চলচ্চিত্রের মানুষেরাই দায়ী।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) শাকিব খান মুক্তি প্রতীক্ষিত বীর ছবির মিট দ্য প্রেস-এর আয়োজন করে এসকে বিগ স্ক্রিন। সেখানেই তিনি এসব কথা বলেন। 

এরপর তিনি এসব সমস্যার সমাধানের জন্য চলচ্চিত্র তথা এফডিসির সবাইকে একসঙ্গে বসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনারা বসে আমাদেরকে ডাকেন। আমরা সরকারের পক্ষ থেকে অবশ্যই উপস্থিত থাকব।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ইদানিং অনেক শিল্পীরা রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত৷ আরে ভাই আপনাদের রাজনীতি নিয়ে থাকার দরকার নেই। আপনাদের কাজ অভিনয় করা, সেটাই মন দিয়ে করেন।

এফডিসির আভ্যন্তরীন রাজনীতির কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এফডিসিতে ৩২২ কোটি টাকা বরাদ্দের যে ১৫ তলা ভবনটি হবে সেটাও তো করতে পারছি না! কেন পারছি না? এই এফডিসি ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে! কারা এই ধ্বংস অবস্থার সৃষ্টি করেছে তাদের খুঁজে বের করেন। এফডিসিকে সিন্ডিকেট মুক্ত করেন। কোনো কাজই তো করা যায় না এখানে। এখানে একজন আরেকজনের মুখ দেখে না।

তিনি বলেন, কথায় কথায় শুধু বলা হয়, সরকার করে দিবে। সরকার কী করে দিবে? সিনেমা হল বানিয়ে দেবে! আচ্ছা, আমরা সিনেমা হল বানিয়ে দিলাম। কিন্তু ছবি নাই তো, তাহলে সিনেমা হলে মানুষ যাবে কী দেখতে? এই সমস্যার সমাধানের পথ আপনাদেরই খুঁজে বের করতে হবে। কারণ, এই শিল্পের আপনারাই ধারক-বাহক। প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেলেই চলচ্চিত্র সংকট কেটে যাবে না। সংকট কাটাতে নিজেদেরকেও উদ্যোগী হতে হবে।

কাজী হায়াৎ পরিচালিত শাকিব খান প্রযোজিত ১৪ ফেব্রুয়ারি ‘বীর’ মুক্তি উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, শাকিব ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কাজী হায়াৎ, চিত্রনায়ক ফারুক, আলমগীর, মিশা সওদাগর, ইমন, নিরব, নাদিম, সোহানুর রহমান সোহান, মুশফিকুর রহমান গুলজার, খোরশেদ আলম খসরু, মালেক আফসারী প্রমুখ।

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

মন্তব্য