রবিবার, ৫ এপ্রিল, ২০২০ | আপডেট ০৩ মিনিট আগে

পরিবারের সবাই ওয়াজ মাহফিলে, ফুফা ধরা

অনলাইন ডেস্ক

পরিবারের সবাই ওয়াজ মাহফিলে, ফুফা ধরা

কুষ্টিয়ায় মিরপুরে চতুর্থ শ্রেণির ১১ বছর বয়সী শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ফুফাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় অভিযুক্তকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। তার নাম আবুল হাসেম (৫৫)।

এর আগে রোববার রাতের ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় শিশু ধর্ষণ অভিযোগে করা মামলার আবুল হাসেমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. তাপস কুমার সরকার জানান, মিরপুর থানায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার ভিকটিম শিশুটির ডাক্তারি পরিক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, গত (১৬ ফেব্রুয়ারি) রোববার রাতে শিশুটির পরিবারের মা, বাবা, দাদিসহ সবাই বাড়ির পার্শ্ববর্তী ওয়াজ মাহফিলে যান। রাত ৯টার দিকে শিশুটির ঘুম পাচ্ছে বলে মাকে জানালে মা বাড়িতে গিয়ে ঘুমাতে বলেন। শিশুটি বাড়িতে এসে ফুফু মিনারা খাতুনের ঘরে টিভি চলতে দেখে সেখানে যান। এসময় ওই কক্ষে মিনারা খাতুন ও তার স্বামীও ঘুমাচ্ছিল। টিভি দেখার এক পর্যায়ে শিশুটিও সেখানে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে মিনারা খাতুনের স্বামী হাসেম আলী ঘুমন্ত শিশুটির মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে।

এঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে মিরপুর থানায় হাসেম আলীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন। 

মিরপুর থানার ওসি আবুল কালাম জানান, গত সোমবার সন্ধ্যায় ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার একমাত্র আসামি হাসেম আলীকে (৫৫) গ্রেপ্তার করে আদালতে সৌপর্দ করা হয়েছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য