বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০ | আপডেট ০৪ ঘণ্টা ১৫ মিনিট আগে

ফরিদপুরে শিলা বৃষ্টি, পেঁয়াজ-গমের ক্ষতি

সোহাগ জামান, ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে শিলা বৃষ্টি, পেঁয়াজ-গমের ক্ষতি

ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা, সালথা ও ভাংগা উপজেলায় কালবৈশাখী ও শিলা বৃষ্টির তাণ্ডবে পেঁয়াজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এতে চরম দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন এলাকার কৃষকেরা। প্রতি বছরের মতো এবারও নগরকান্দা ও সালথায় ব্যাপক পেঁয়াজ আবাদ করেছেন চাষীরা।

তাছাড়া এ বছর বাজারে পেঁয়াজের দর ভালো থাকায় আবাদের পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে। এবারে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হবে এমনই আশা ছিল। কিন্তু মঙ্গলবার ভোর রাতে হঠাৎ ঝড় ও টানা শিলাবৃষ্টিতে কৃষকের এ আশা-নিরাশায় পরিণত হয়েছে। প্রবল ঝড়ো হাওয়া ও শিলা বৃষ্টিতে মাঠে থাকা পেঁয়াজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

স্থানীয় কৃষকেরা জানান, মঙ্গলবার ভোর রাতের পর থেকে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী এ শিলা বৃষ্টিতে পেঁয়াজের জমিতে পানি জমে যায়। তাছাড়া বৃষ্টির সাথে বাতাস থাকায় অনেক জায়গায় পেঁয়াজ গাছ মাটির সাথে মিশে যায়। এতে বেশি ক্ষতি হয়েছে বীজ পেঁয়াজের। শিলার আঘাতে বীজের ডাটা ভেঙ্গে মাটিতে নুইয়ে পড়েছে। এছাড়াও গম, কালো জিরা ও ধনিয়াসহ অন্যান্য মৌসুমী ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, নগরকান্দা উপজেলায় এবছর ৭ হাজার ৩ শত ৯৫ হেক্টোর জমিতে পেঁয়াজের চাষ হয়। শিলা বৃষ্টিতে পেঁয়াজের প্রায় ৬০ শতাংশ ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

অন্যদিকে, সালথা উপজেলায় ১১ হাজার ৯৪৮ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষ হয়। এখানেও শিলা বৃষ্টিতে পেঁয়াজের প্রায় ৬০ শতাংশ ও গমের প্রায় ৪০ শতাংশ ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। এতে হতাশায় পড়েছেন এখানকার চাষীরা। বৃষ্টির কারণে পেঁয়াজ ছাড়াও মাঠে থাকা সব ধরনের ফসলই কম-বেশি ক্ষতি হয়েছে।

নগরকান্দা উপজেলা কৃষি অফিসার মো. বিন ইয়ামিন বলেন, শিলা বৃষ্টির পর মাঠের ফসলের অবস্থা নির্ণয় করা হচ্ছে। এখনও ক্ষয়ক্ষতির প্রকৃত পরিমাণ জানা যায়নি। কৃষি অফিসের কর্মকর্তারা সরেজমিনে গিয়ে রিপোর্ট করবেন।

নগরকান্দা উপজেলাতে শিলা বৃষ্টিতে এলাকার প্রধান ফসল পেঁয়াজের পাশাপাশি গম, কালো জিরা ও ধনিয়াসহ অন্যান্য মৌসুমী ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য