শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০ | আপডেট ২৩ মিনিট আগে

করোনার প্রভাবে ক্ষতি হতে পারে ২৫ হাজার কোটি টাকার বেশি

কর্মসংস্থান কমে যেতে পারে ৯ লাখ

অনলাইন ডেস্ক

করোনার প্রভাবে ক্ষতি হতে পারে ২৫ হাজার কোটি টাকার বেশি

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় গেলে এক বছরে বাংলাদেশে প্রায় ৯ লাখ কর্মসংস্থান কমে যেতে পারে।

এ ছাড়া ৩০২ কোটি ডলারের বেশি মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ক্ষতি হতে পারে, বর্তমান বাজারদরে (৮৫ টাকা প্রতি ডলার) যার পরিমাণ সাড়ে ২৫ হাজার কোটি টাকার বেশি।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) এক প্রতিবেদনে এ শঙ্কার কথা বলা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিবেদনে এডিবি বলেছে, ২০১৮ সালে বাংলাদেশের জিডিপির আকার ছিল ২৭ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের বেশি। সেই হিসাবে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে খারাপ হলে বাংলাদেশে এক বছরে জিডিপির ১ শতাংশের বেশি ক্ষতি হবে।

এশীয় ২৩টি দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে কী ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে, সেই হিসাব তুলে ধরা হয়েছে এডিবির ওই প্রতিবেদনে।

পরিস্থিতি সবচেয়ে ভালো থাকলে, সীমিত আকারে ছড়ালে, খারাপভাবে ছড়ালে এবং পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ হলে—এই চার ধরনের সম্ভাবনা ধরে এডিবি প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

এডিবি’র পর্যালোচনায় বলা হয়েছে, বিশ্ববাসী সবচেয়ে ভালোভাবে এই ভাইরাস সংক্রমণ সামাল দিতে পারলে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ক্ষতি হবে ৮০ লাখ ডলার। আর মোটামুটি ভালোভাবে অর্থাৎ সংক্রমণ তীব্র হওয়ার তিন মাসের মাথায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা গেলে বাংলাদেশের ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে এক কোটি ৬০ লাখ ডলার, যা জিডিপির দশমিক ০১ শতাংশ।

এডিবি বলছে, প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশগুলোর অর্থনীতির ওপর উল্লেখযোগ্য নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। পর্যটন, ভ্রমণ, বাণিজ্য ও উৎপাদন ব্যবস্থায় ধাক্কা, অভ্যন্তরীণ চাহিদা হ্রাস, সরবরাহ ব্যাহত ও স্বাস্থ্যগত প্রভাবে এই ক্ষতি হবে। অর্থনৈতিক ক্ষতির মাত্রা কী হবে তা নির্ভর করছে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কতটা বিস্তৃত হবে তার ওপর, যা এখনও খুবই অনিশ্চিত।

এডিবির পর্যালোচনায় নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষতির পরিমাণ ৭৭ বিলিয়ন থেকে ৩৪৭ বিলিয়ন ডলার পর্যন্ত, যা জিডিপির দশমিক ১ থেকে দশমিক ৪ শতাংশ হবে।

পরিস্থিতি খুব বেশি খারাপ না হলে, ভাইরাস সংক্রমণ তীব্র মাত্রায় পৌঁছানোর তিন মাসের মাথায় পূর্ব সতর্কতামূলক ব্যবস্থা ও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার মতো বিধি-নিষেধ কাটতে শুরু করলে বৈশ্বিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে ১৫৬ বিলিয়ন ডলার, যা বৈশ্বিক জিডিপির দশমিক ২ শতাংশ।

ভাইরাস সংক্রমণের এই ধাক্কায় চীন ১০৩ বিলিয়ন ডলার বা জিডিপির দশকি ৮ শতাংশ ক্ষতির মুখে পড়তে পারে।

এশিয়ার বাকি উন্নয়নশীল দেশগুলো ২২ বিলিয়ন ডলার বা জিডিপির দশমিক ২ শতাংশ ক্ষতির মুখে পড়বে বলে এডিবির পূর্বাভাস।

গতকাল (রোববার) বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত তিন ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। ইতালি ফেরত দুই বাংলাদেশির মাধ্যমে এই ভাইরাস এ দেশে প্রবেশ করেছে বলে নিশ্চিত করেছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া যায়। পরে তা ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের শতাধিক দেশে। 

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য