বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০২০ | আপডেট ৩৭ মিনিট আগে

স্বাধীনতা পদক থেকে বাদ পড়লেন সেই রইজ উদ্দিন

অনলাইন ডেস্ক

স্বাধীনতা পদক থেকে বাদ পড়লেন সেই রইজ উদ্দিন

‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০২০’ এর তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন আলোচিত ও সমালোচিত এস এম রইজ উদ্দিন আহম্মেদ। এর আগে গত ২০ ফেব্রুয়ারি জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তাকে সাহিত্যে ‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০২০’ দেওয়ার ঘোষণা দেয় সরকার।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আজ বৃহস্পতিবার স্বাধীনতা পুরস্কার ২০২০ প্রদান বিষয়ক একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ওই তালিকায় সাহিত্যে স্বাধীনতা পদক পাওয়া এস এম রইজ উদ্দিন আহম্মেদের নাম বাদ পড়ে। তবে সাহিত্য ক্যাটাগরিতে নতুন কারও নামও ঘোষণা করা হয়নি। যার ফলে চলতি বছরে সাহিত্যে স্বাধীনতা পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে না।

আজকের বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে দেশের আটজন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে ‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০২০’ দেওয়া হবে।

তারা হলেন স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের জন্য বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক, মরহুম কমান্ডার (অব.) আবদুর রউফ, মরহুম মুহম্মদ আনোয়ার পাশা ও আজিজুর রহমান; চিকিৎসাবিদ্যায় অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী ও অধ্যাপক ডা. এ কে এম এ মুক্‌তাদির; এবং সংস্কৃতিতে কালীপদ দাস ও ফেরদৌসী মজুমদার। এ ছাড়া শিক্ষায় অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের ভারতেশ্বরী হোমস্‌ এবার স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ২৫ মার্চ সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রসঙ্গত, এস এম রইজ উদ্দিন আহম্মেদকে সাতিহ্যে স্বাধীনতা পুরস্কার-২০২০ দেওয়ার ঘোষণার পরে সামাজিক মাধ্যমে অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালকসহ বেশ কয়েকজন পরিচিত সাহিত্যিক।

বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান ফেসবুকে লিখেন ‘এবার সাহিত্যে স্বাধীনতা পুরস্কার পেলেন রইজউদ্দীন, ইনি কে? চিনি না তো। কালীপদ দাসই বা কে! হায়! স্বাধীনতা পুরস্কার!’

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর/কামরুল

মন্তব্য