করোনা, মাদরীপুরে বাজার লেনদেন হয় বেড়ার মধ্য দিয়ে

মাদারীপুরের সঙ্গে বরিশালের পথ বন্ধ

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

করোনা, মাদরীপুরে বাজার লেনদেন হয় বেড়ার মধ্য দিয়ে

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে মাদারীপুরের সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের জেলা বরিশালের যোগাযোগ (ঢাকা-বরিশাল মহাসড়ক ছাড়া) সকল পথ বন্ধ করে দিয়েছে বরিশাল প্রশাসন। সোমবার দুপুর থেকে কালকিনি উপজেলার কয়েকটি সীমান্তবর্তী রুটের সংযোগস্থলে বাঁশ-কাঠ দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার সাথে বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার সীমান্তবর্তী নতুন টরকি থেকে রমজানপুর রাস্তার বড় ব্রিজ, গৌনদীর লঞ্চ ঘাট থেকে চড় পালড়দী খেয়া ঘাট, ঘোষেরহাট বাজার থেকে খাজুড়তলা হাট ব্রিজ, আগৈলঝাড়া-মাদারীপুর রাস্তার খাঞ্জাপুর বড় ব্রীজ সহ ছোট বড় ব্রিজ, কালর্ভাট, পা হাটা পথ, নদী পথ, সহ বাঁশ সাকোর সকল যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দিয়েছে বরিশাল প্রসাশন। এতে করে দুই জেলার সিমান্তবর্তী হাট-বাজার গুলোতে দৈনন্দীর নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার লেনদেন করতে হচ্ছে বেড়ার মধ্য দিয়ে।

ডাসার থানার ওসি মো. ওহাব মিয়া জানান, ‘গৌনদী থানার পুলিশ কাজীবাকাই বাজারে এসে আমাদের সহযোগিতায় সবাইকে জড়ো হতে না করে গেছে। ওসব এলাকার লোকজনকে তাদের এলাকায় প্রবেশে বাঁধা দিচ্ছে। আমরাও চেষ্টা করছি সাধারণ মানুষকে জড়ো না হতে। তাদের নিজের এলাকায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। এই যোগাযোগ
বিচ্ছিন্ন করা আইনগতভাবে করা হয়নি, মানুষকে সচেতন করতে করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মাদারীপুরে করোনা ভাইরাসে সন্দেহে মোট ৩৩৭ জন হোম কোয়ারেন্টিনে আছে। গৌনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে মাদারীপুরের সঙ্গে গৌড়নদীর সকল সীমান্তবর্তী সংযোগ সড়ক সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে ঢাকা বরিশাল মহাসড়ক খোলা আছে।

কালকিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা.আমিনুল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যে আমরা যে সমস্ত দোকানে জনগণের ভিড় হয় ওই দোকান পাট বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দিয়েছি এবং আমরা মাঠে তদারকি করছি।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য